Connect with us

    Bangla Serial

    Mithai: উচ্ছে বাবু বা মোদক পরিবারের প্রতি লোভ নেই মিঠির! মিঠাই ম্যামের হাতে সংসারের দায়িত্ব তুলে দিয়ে শান্ত হবে সে জানিয়ে দিল! “লীনা পিসির সিরিয়াল হলে এতক্ষণে চুলোচুলি লেগে যেত কিন্ত এখানেই আলাদা মিঠাই”, খুশি ভক্তরা

    Published

    on

    mithi mithai 1

    এক সময় একতরফা ও একটানা টি আর পি লিস্টের শীর্ষে থেকেছে জি বাংলা তথা বাংলার অন্যতম জনপ্রিয় ধারাবাহিক মিঠাই। তবে তারপর টি আর পি লিস্টে নিজের জায়গা একটু একটু করে হারালেও এতদিনে, মিঠাই সিরিয়াল যে মানুষের ইমোশন পরিণত হয়ে গিয়েছে তা কি আর আলাদা করে বলতে লাগে। মিঠাই এতদিন তাঁদের নিজের মেয়ে হয়েই ছিল। কিন্তু এর মাঝে বার বার বহু কারণে দর্শকরা হতাশ হচ্ছে।

    এককালে টি আর পির শীর্ষে নিজের জায়গা টিকিয়ে থাকা মিঠাই কিন্তু আজ আর টি আর পিতে বিশেষ পসার জমাতে পারছে না। নানা কারণে বার বার হতাশ হচ্ছে মিঠাই এর অনুরাগীরা। তবে তাতে পিছিয়ে যাচ্ছে না, হতাশার কথা বলে উঠছেন অনুরাগীরা।

    প্রোমো থেকে শুরু করে মিঠি, মিঠাইয়ের ফিরে আসা সবেতেই তাঁদের বেশ আক্ষেপ সুর ধরা দিচ্ছিল। এক মুহূর্তে তাঁদের বার বার মনে করানো হল যে মিঠিই হয়তো আসলে মিঠাই। বার বার প্রমোতে এই ভুল ধারণা করানোর জন্য প্রথমে বিক্ষুব্ধ হন অনুরাগীরা। তারপর যে সময় মিঠিকেই ভালোবাসতে শুরু করল দর্শকরা তখন ঘটল অন্য ঘটনা।

    মিঠাই ফিরে এল সিদ্ধার্থ এর জীবনে হঠাৎ করেই। তাও আবার মিষ্টিকে নিয়ে। শাক্যকে যখন সবে মায়ের আদরে মিঠি জড়িয়ে ধরল তখনই মিঠাই ফিরে এল। অমনিই যেন ত্রিকোণ প্রেমের গন্ধ ভেসে এল। কিন্তু এখানেই তো মিঠাই আলাদা। কেন আলাদা? সেই কথাও ব্যখ্যা করল খোদ অনুরাগীরা।

    ত্রিকোণ প্রেমের গল্প তো হলই না। বরং গল্পের ছক গেল অন্যদিকে। মিঠি কিন্তু মিঠাইকে নিজের প্রতিপক্ষ বা শত্রু হিসেবে ভাবেওনি। বরং নিজের রাস্তা পরিষ্কার করার জন্য অন্য কোনও ছক কষেনি। আর এতেই বেশ খুশি হয়েছেন অনুরাগীরা। বরং তাঁরা নিজেরাই সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখেছেন, “মিঠির জায়গায় অন্য কেউ থাকলে এতক্ষণে লম্বা লিস্ট বানিয়ে মিঠাইয়ের পিছনে লাগতো”।

    কিন্তু সেসব কিছুই না। বরং মিঠি খুব কিন্ত আজ মিঠি দৃঢ়কন্ঠে জানিয়ে দিলো, মিঠাই ম্যামের হাতেই এই সংসার তুলে দিয়ে সে নিশ্চিত হবে। আর এই কারণেই মিঠাই সবার থেকে আলাদা, “ইউনিক” তকমা পেল। আপাতত অনুরাগীদের অপেক্ষা শুধু কবে মিঠাই ও সিড এক হবে!