Connect with us

    Bangla Serial

    “সবার সামনে পরিচালক চড় মেরেছিলেন!” ইন্ডাস্ট্রির কালো দিক নিয়ে অকপট অভিনেতা ইন্দ্রজিৎ বোস

    Published

    on

    Indrajit Bose 1

    দীর্ঘ ১৪ বছর ধরে ছোটপর্দায় কাজ করেছেন। দশ দশটা ধারাবাহিকে নায়কের ভুমিকায় কাজ করেছেন। সদ্য প্রতীম ডি. গুপ্তার নয়া সিনেমা ‘চালচিত্র’-র হাত ধরে সিনে দুনিয়ায় পা রেখেছেন। আর প্রথম ছবিতে সহঅভিনেতা হিসেবে পেয়েছেন টোটা রায়চৌধুরী, শান্তনু মাহেশ্বরী, বাংলাদেশের জিয়াউল ফারুক অপূর্বর মতো অভিনেতাদের। শহর কলকাতার বিভিন্ন জায়গায় চলছে সিনেমাটির শুটিং। সিনেমায় অভিনয়ের সুযোগ পাওয়াটা কেরিয়ারের অন্যতম প্রাপ্তি বলে মনে করেন অভিনেতা ইন্দ্রজিৎ বোস (Indrajit Bose)

    নিজের অভিনয় জীবন সংবাদমাধ্যমের প্রশ্নের অকপট উত্তর দিলেন অভিনেতা। জানালেন, তাঁর অভিনয় জগতে আসা কাকতালীয়। এক দুপুরে ছাত্র পড়াতে পড়াতে হঠাৎই ফোন কল পান ধারাবাহিকে কাজ করার। প্রথম চৈতন্যর ভুমিকায় অভিনয় করেন। তারপরই সুযোগ পান ‘রাশি ‘তে। আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি ইন্দ্রজিৎকে।

    প্রথম ধারাবাহিকের পরিচালক নাকি একবার নায়িকাকে জড়িয়ে ধরার সময়ে আড়ষ্ট হতে দেখে সপাটে এক চড়ও মারেন। যদিও এসব কিছু অপমানজনক বলে মনে করেন না ইন্দ্রজিৎ। তার কাছে স্কুলের শিক্ষকরা যেমন আমাদের মেরে,বকে লেখাপড়া শেখান।অভিনয়টাও তাই। পরিচালক বকা দিয়ে হোক, চড় মেরেই হোক অভিনয় শিখিয়েছেন।

    ইন্ডাস্ট্রিতে চোদ্দ বছর কাটিয়ে ইন্দ্রজিতের মন্তব্য এখনকার প্রজন্ম অনেক বেশ প্রফেশনাল। তারা কাজ করে, এক একটা দিনের মুল্য বোঝে। তবে সেটকে পরিবার ভাবে না। যেটা একটা পর্যায়ে গিয়ে সঠিক। এবার একটা জায়গায় গিয়ে সম্পর্কের গুরুত্ব কমেছে। যা খানিকটা হলেও ভাবায় ইন্দ্রজিৎকে।

    কেরিয়ারের সফল একটি জায়গায় এসে বললেন ইন্দ্রজিৎ সেটেল করবেন। জীবনটা ছাপোষা রাখতেই বেশি পছন্দ করেন অভিনেতা। জনসংযোগ নিয়ে খুব একটা কিছু করেন না। নিজের কাজকেই ধ্যানজ্ঞান মনে করেন। বিতর্কের থেকে দূরে থাকেন শত যোজন। অভিনয় করেই বাকি জীবনটা কাটিয়ে দিতে চান অভিনেতা।