Entertainment

জগদ্ধাত্রীতে তীব্র উত্তেজনা! ‘তোমার পাপের শাস্তি তুমি পাবে’ উৎসবকে হুঁশিয়ারি কৌশিকীর

জি বাংলার (Zee Bangla) জনপ্রিয় ধারাবাহিক, টিআরপি তালিকায় শীর্ষে অবস্থানকারী ধারাবাহিক জগদ্ধাত্রীতে(Jagaddhatri) চলছে ধামাকা পর্ব। কৌশিকী আর জগদ্ধাত্রীকে হত্যার চেষ্টার তদন্ত করছে জগদ্ধাত্রী এবং স্বয়ম্ভু। ইতিমধ্যেই তারা জানতে পেরেছে উৎসব এবং দেবুদা মিলে বাঁকাকে দিয়ে হত্যার চেষ্ঠা করছে তাদের। যদিও পুরো ঘটনার বিষয়ে এখনও জানতে পারেনি জগদ্ধাত্রী।

ইতিমধ্যেই আমরা দেখেছি সমরেশ কাঁকনের খোঁজে গেছিল মুখার্জী বাড়ি কিন্তু উৎসব তাকে অপমান করে ফিরিয়ে দেয়। কিন্তু কৌশিকী কাঁকনকে নিয়ে যায় সমরেশের বাড়ি। আজকের পর্বে আমরা দেখতে চলেছি সমরেশ কাঁকনকে পাবার জন্য থানায় ফোন করার কথা বললে তার বাড়ির লোকেরা তাকে আটকে দেয়। তখনই কৌশিকী কাঁকনকে নিয়ে আসে সমরেশের বাড়ি। ছদ্মবেশী নন্দীদাকে দিয়ে কাঁকনকে বাড়িতে যেতে বলে। নন্দী কৌশিকীকে সুরক্ষা নিয়ে জিজ্ঞাসা করে। তিনি বলেন এই বাড়ির ভেতর একটা পাখিও আসতে পারবে না এখন।

কাঁকনকে দেখে খুব খুশি হয় সমরেশ। তাকে জড়িয়ে ধরে আদর করে, অনেক কথা বলে। সমরেশ রাজনাথ মুখার্জীকে ফোন করে ধন্যবাদ জানায় কাঁকনকে পাঠানোর জন্য। রাজনাথ মুখার্জী কিছু বুঝতে না পেরে ফোন কেটে দেন। তখনই সেখানে আসে বৈদেহী, মেহেন্দি আর উৎসব। রাজনাথ তাদের সব কথা বলতেই তারা চমকে ওঠে। রাজনাথ উৎসবকে টাকার কথা জিজ্ঞাসা করতেই সে বলে পরে আসে বলবে। এই বলে সে বেরিয়ে যায় সমরেশের বাড়ির উদ্দেশ্যে।

এক ঘন্টা হবার পর কাঁকনকে নিয়ে চলে যায় কৌশিকী। উৎসব সমরেশের বাড়ি গিয়ে জিজ্ঞাসা বাদ করে। কাঁকনের ছবি দেখে সে অবাক হয়ে যায়। তারপরই কৌশিকী উৎসবকে ফোন করে বলে তার পাপের ঘরা পূর্ণ হয়েছে। সে শাস্তি পাবেই। একটা বাচ্চাকে কষ্ট দিয়েছে সে। তাকে আর কেউ বাঁচাতে পারবে না। জাস সান্যাল এখন নেই, তবে তিনি বলতেন পাপ চাপা থাকেনা। এই বলে ফোন কেটে দেয় কৌশিকী।

ওদিকে জগদ্ধাত্রী গোপালের সামনে গিয়ে গাড়ি দার করায়। ভয় পেয়ে যায় গোপাল। তার বিষয়ে সব বলে সে জিজ্ঞাসা করে সেইদিন রিসোর্টে সে ছিল কিনা। ভয় পেয়ে গোপাল পালাতে গেলে গুলি করার ভয় দেখিতে তাকে থামিয়ে দেয় জগদ্ধাত্রী। তো কি মনে হচ্ছে আপনাদের গোপাল কি সব সত্যি বলতে জগদ্ধাত্রীকে। কিভাবে নেবে কৌশিকী কাঁকনের কষ্টের বদলা।

Ruhi Roy

রুহি রায়, গণ মাধ্যম নিয়ে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর পাশ। সাংবাদিকতার প্রতি টানে এই পেশায় আসা। বিনোদন ক্ষেত্রে লেখায় বিশেষ আগ্রহী। আমার লেখা আরও পড়তে এখানে ক্লিক করুন।