Connect with us

    Bangla Serial

    “এটা মোটেও পরকীয়া নয়, পরাগ কিছু ভুল করেনি…!” ডিভোর্সের পর পরাগের হয়েই মুখ খুললো শিমুল! অবাক দর্শকরা

    Published

    on

    Kar Kache Koi Moner Kotha, Bengali Serial, Zee Bangla, কার কাছে কই মনের কথা, জি বাংলা, বাংলা সিরিয়াল,

    জি বাংলার (Zee Bangla) জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘কার কাছে কই মনের কথা’ (Kar Kache Koi Moner Katha)। নতুন বছর পড়তেই একঝাঁক চমক নিয়ে হাজির এই ধারাবাহিক। বর্তমানে এখানে দেখানো হচ্ছে, পরাগের সঙ্গে ডিভোর্স হয়ে গেছে শিমুলের। আর ডিভোর্সের পরই নতুন সম্পর্কে জড়িয়েছে পরাগ। এমনকি নতুন প্রেমিকাকে বিয়েও করতে চলেছে সে। কিন্তু আদৌ কি ঠিক করছে পরাগ? এবার পরাগের পাশে দাঁড়িয়ে তার হয়েই কথা বললো শিমুল।

    ‘কার কাছে কই মনের কথা’ ধারাবাহিকের প্রথম থেকেই দেখানো হয়েছে, পরাগের সঙ্গে বিয়ের পর থেকে একের পর এক অশান্তির শিকার শিমুল। নিজের দাম্পত্য জীবনে কখনোই সুখ পায়নি সে। উল্টে অপমান, অত্যাচার ও যন্ত্রণার মাধ্যমে দিন কাটাতে হয়েছে তাঁকে। অবশেষে সমস্ত অশান্তি শেষ করে পরাগের সঙ্গে বিবাহ বিচ্ছেদ হয়েছে তাঁর। এখন নতুন এক জীবনের পথে পা বাড়িয়েছে শিমুল।

    আরো পড়ুন:পর্ণা-অনুভবের ফটোশুট বানচাল করতে পাগল সেজে অদ্ভুত কান্ড সৃজনের! ‘বেটা সত্যিই মা’থা’মো’টা, পাগল’ কটাক্ষ নেটিজেনদের

     

    সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে খোলামেলা আড্ডায় আসেন ‘কার কাছে কই মনের কথা’ ধারাবাহিকের পরাগ ওরফে অভিনেতা দ্রোণ মুখার্জি ও শিমুল ওরফে অভিনেত্রী মানালি দে। আলোচনা প্রসঙ্গে পরাগের বিয়ে নিয়ে কথা উঠলে মানালি বলেন, “আইনের চোখ দিয়ে দেখতে গেলে পরাগ যা করছে তা একদম ঠিক। কারণ তাঁর প্রাক্তন স্ত্রীর সঙ্গে বিচ্ছেদ হয়েছে। এখন সে নতুন সম্পর্কে জড়াতেই পারে। এখানে কোনো পরকীয়ার ঘটনা দেখানো হয়নি।”

    এরপর মানালি বলেন, “শিমুলের এখন নিজেকে গড়ে নেওয়ার সময়। তার এখন একটাই উদ্দেশ্য কীভাবে পুতুল দি, শাশুড়ি মা ভালো থাকবে তা দেখা আর নিজের পায়ের তলার জমি শক্ত করা।” ডিভোর্সের পরও কেন শ্বশুরবাড়িতে আসছে শিমুল? এই প্রশ্নের উত্তরে মানালি বলেন, “শিমুল সম্পূর্ণ নিজের অধিকারে চলছে। এখন অনেক মেয়েই জানেন না তাঁদের অধিকারের গণ্ডি কতটা, তাই আমাদের ধারাবাহিকের মাধ্যমে সামাজিক বার্তা দেওয়া হচ্ছে।”

     

    ধারাবাহিকের চরিত্র থেকে বেরিয়ে এসে স্বতন্ত্র ভাবে আড্ডা দেন দ্রোণ ও মানালি। অভিনেতা দ্রোণ বলেন, “পরাগের চরিত্রটি একেবারে অন্য রকমের, যাকে আগে থেকে ধারণা করা যায় না। অর্থাৎ তথাকথিত এক ধাঁচের চরিত্র নয়।” পরাগ বিয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছে, এর ফলশ্রুতি কী হবে তাও জানে শিমুল। পরাগের নতুন বউয়ের বিপদে ঝাঁপিয়েও পড়ছে সে। কিন্তু সাংসারিক বাঁধনে আর বাঁধতে চায়না সে নিজেকে। নতুন রূপে ফিরবে ‘কার কাছে কই মনের কথার’ শিমুল।