Bangla Serial

বাড়ি ছেড়ে বিরাট বড় বিপদের মুখে পুতুল! নিজের প্রাণের পরোয়া না করেই পুতুলকে বাঁচালো শিমুল! আগাম পর্ব ফাঁস

জি বাংলার (Zee Bangla) জনপ্রিয় ধারাবাহিক কার কাছে কই মনের কথায় (Kar Kache Koi Moner Kotha) চলে এসেছে নতুন চমক। বৌভাতের দিন রঞ্জা পুতুলকে ধাক্কা মারে এবং অনেক অপমান করে যেটা শুনেই বাড়ি যাওয়ার জেদ করে পুতুল। কিন্তু তীর্থ তাকে বলে দেয় আজ বৌভাতের অনুষ্ঠান আছে তাই সে যেতে পারবে না পরের দিন নিয়ে যাবে কিন্তু পুতুল কারুর কথা না শুনে একা একাই বেরিয়ে যায় বাড়ি থেকে। প্রথমে একটু চায়ের দোকানের লোকেদের জিজ্ঞাসা করে সে তারা যখন বলে অনেক দূর তখন তাদের থেকে টাকা চায় পুতুল কিন্তু তাদের কথা শুনে পুতুলের খারাপ লাগে তাই একটা অটো করে নিজেই সে চলে যায় বাড়ির উদ্দেশ্যে।

অটোওয়ালা তার কাছে পয়সা চাইলে সে বলে তার কাছে পয়সা নেই তখন অটোওয়ালা তাকে বলে যখন তার কাছে টাকা নেই তাহলে কেন সে অটোতে উঠেছে। এখন টাকা না দেওয়া পর্যন্ত সে তাকে যেতে দেবে না তখন পুতুলের পাশে বলে থাকা লোকটি পুতুলের অটো ভাড়া দিয়ে দেয় সেই অটোচালককে। সেটা দেখে আর কিছু বলে না পুতুল। লোকটি তাকে জিজ্ঞাসা করে সে কোথায় থাকে তখন পুতুল বলে তার সামনে বাড়ি সে চলে যাবে সে বাড়ি চেনে। কিন্তু পুতুলের গয়না দেখে লোভ হয় লোকটির।

তিনি পুতুলকে বলে তার সঙ্গে যেতে সে তাকে খাওয়াবে কিন্তু পুতুল তাকে বারণ করে দেয় তারপর আবার লোকটি পুতুলকে বলে এই পাশেই দোকান আছে তার যা ইচ্ছে সে খেতে পারে তিনি টাকা দেবেন। খাওয়ারের কথা শুনেই পুতুলও রাজি হয়ে যায় তার সঙ্গে যেতে। ওদিকে তীর্থ সবটা জানিয়ে দেয় শিমুলকে। শিমুল বিপাশা আর সুচরিতাকে সবটা বলে। তারা বলেন পুতুল আসলে এখানেই আসবে তাই তাদের অপেক্ষা করতে হবে। ওদিকে তীর্থ চলে যায় থানায়। পুলিশের কাছে গিয়ে তীর্থ বলে তার স্ত্রীকে পাওয়া যাচ্ছে না। তার সাধারণ নয়, তার স্ত্রীর বুদ্ধি বাচ্চাদের মতো।

আরো পড়ুন: শতদ্রু নয়, পরাগের কাছেই ফিরুক শিমুল, চাইছেন খোদ দর্শকরাই! আপনাদের কী মত?

সেই কথা শুনেই পুলিশ তাকে প্রশ্ন করে এরকম একটি মেয়েকে তিনি কেন বিয়ে করেছেন সেটা শুনে বিরক্ত হয় তীর্থ কিন্তু পুলিশ বলে এখন এরকম মানুষ দেখা যায়না তাই তিনি বলেছেন। তারা খুঁজছেন পুতুলকে। এদিকে মধুবালা চিন্তা করবে ভেবে তাকে সম্পূর্ন বিষয়টা বলতে পারছেন না শিমুল। তুতুল আসলে তাকে সবটা বলে শিমুল এবং তারা খুঁজতে বেরিয়ে যায় পুতুলকে। ওই লোকটি পুতুলকে তার বাড়ির পাশের একটি অচেনা গলিতে নিয়ে যায়। সেখানে কোনও দোকান দেখতে না পেয়ে পুতুলের একটু ভয় লাগে এবং সে চিৎকার করতে শুরু করে দেয়। সেই গলার আওয়াজই শুনতে পেয়ে যায় শিমুল। তাহলে কি অবশেষে শিমুলই উদ্ধার করবে পুতুলকে সেই লোকটার থেকে, নাকি ঘটবে কোন বড় বিপদ?

Ruhi Roy

রুহি রায়, গণ মাধ্যম নিয়ে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর পাশ। সাংবাদিকতার প্রতি টানে এই পেশায় আসা। বিনোদন ক্ষেত্রে লেখায় বিশেষ আগ্রহী। আমার লেখা আরও পড়তে এখানে ক্লিক করুন।