Connect with us

    Tollywood

    মা চেয়েছিলেন মাস মাইনের চাকরি করি! কিন্তু আমি অভিনয় ছাড়া কিছুই পারি না! অকপট বল্লভপুরের ‘ভূপতি রায়!’

    Published

    on

    Satyam Bhattacharya

    অনির্বাণ ভট্টাচার্য (Anirban Bhattacharya) পরিচালিত ‘বল্লভপুরের রূপকথা’ (Ballavpurer Roopkatha) ছবিতে ভূপতি রায়ের চরিত্রে সাড়া ফেলেছিলেন অভিনেতা সত্যম ভট্টাচার্য (Satyam Bhattacharya) । তার পর থেকে একের পর এক কাজে দর্শকদের মন জয় করেছেন সত্যম। দেবের ‘ব্যোমকেশ ও দূর্গ রহস্য’ হোক, কি ওয়েব পর্দার কাজ, চুটিয়ে কাজ করছেন অভিনেতা। এক সময় থিয়েটারের মঞ্চ থেকে আজ বড়পর্দায় কাজ, কেমন ছিল অভিনেতা সত্যম ভট্টাচার্যের জার্নি? খোলামেলা আড্ডায় ভাগ করে নিলেন অভিনেতা।

    একসময় মাস মাইনের চাকরির জন্য যেকোনো কাজে যুক্ত হতে বলেছিলেন অভিনেতার মা। তিনি বলেন, পরিবার থেকে কখনও জোর করা হয়নি তাঁকে। কিন্তু মা বলতেন, এবার একটা মাস মাইনের কাজ শুরু জরুরি। পরিবারের সামনে তখন সত্যম ভট্টাচার্যের উত্তর ছিল, “আমি তো অভিনয় ছাড়া কিছুই পারিনা, যদি কিছু করতে হয় তবে এখানেই করবো…।” মায়ের থেকে দিন কয়েকের সময় চেয়ে নেন সত্যম। তাঁর মন বলছিল ভালো কিছু হবেই।

    আরো পড়ুন: ইচ্ছে পুতুলে বিরাট ধামাকা! নীলকে ডিভোর্স দিয়ে অন্য পুরুষের সঙ্গে ঘর বাঁধছে মেঘ! নতুন পুরুষ কি তবে জিষ্ণু?

    এরপর অনির্বান ভট্টাচার্যের হাত ধরে ‘বল্লভপুরের রূপকথায়’ ভূপতি রায় হয়ে উঠলেন সত্যম। যদিও ছবি মুক্তির দুই মাস পর অবধি ভেতরে ভেতরে টেনশন কাজ করছিল তাঁর। একটা সময় যখন বুঝতে পারলেন দর্শক তাঁকে পছন্দ করছে, তখন পরিবারের মুখে হাসি দেখেছিলেন তিনি। তাঁর মতে, হয়ত সে সময় তাঁর মধ্যে কোনো উজ্জ্বল্য ছিল, সেই কারণেই হয়তো অনির্বাণ ভট্টাচার্যের সুদক্ষ চোখে ধরা পড়েন তিনি।

    সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে অভিনেতা সত্যম জানান, নানান ধরণের চরিত্র অভিনয় করতে চান তিনি। তাঁর স্বপ্নের চরিত্র ‘গল্প হলেও সত্যি’ ছবিতে রবি ঘোষের চরিত্রটি। যদি কোনোও পরিচালক স্বনামধন্য ছবির রিমেক করেন ও তাঁকে রবি ঘোষের চরিত্রে অভিনয় করার দুঃসাহস দেন তবে নিজের সবটুকু উজাড় করবেন সত্যম। থিয়েটার মঞ্চ থেকেই বড় পর্দায় পা। যদিও অভিনয়ের মঞ্চে তিনি কোনোও পার্থক্য দেখতে পান না। তাঁর মতে হয়তো দুই ক্ষেত্রে কিছু বাহ্যিক পার্থক্য আছে, তবে
    আসল হলো চরিত্রটিকে আপন করা।

    ব্যক্তিগত জীবনেও ‘কুল ম্যান’ সত্যম। কিছুদিন পর গাঁটছড়া বাঁধতে চলেছেন তিনি। বিয়ের পিঁড়িতে বসা নিয়ে মোটেই চিন্তিত নন সত্যম। তাঁর মতে, বিয়ে থেকে বৌভাত পর্যন্ত কোনও টেনশনই নেই। বদলে বিয়ের পর যাতে সুখে সংসার করতে পারেন সেটাই তাঁর ভাবনার বিষয়। সামাজিক রীতি মেনে সাতপাকে ঘুরবেন সত্যম। অভিনয়, ব্যস্ততা ও বিয়ে পরবর্তী জীবনের পাল্লা সঠিক রাখতে মন দিয়েছেন সত্যম ভট্টাচার্য।