Connect with us

    Tollywood

    “হু ইজ স্বাগতালক্ষ্মী”! বিয়েবাড়িতে গিয়ে চরম অপমানিত বিখ্যাত গায়িকা স্বাগতালক্ষ্মী! খুললেন মুখ

    Published

    on

    swagatalokkhi rupankar

    সম্প্রতি প্রয়াত হয়েছেন বিশিষ্ট বলিউড গায়ক কেকে। গায়কের মৃত্যু নিয়ে একদিকে যেখানে শোকাহত হাজার হাজার অনুরাগী অন্যদিকে কেকেকে নিয়ে তাঁর মৃত্যুর আগে থেকেই বিতর্কিত মন্তব্য করে আলোচনায় রয়েছেন বাঙালি গায়ক রূপঙ্কর বাগচী।

    সোমবার রাত থেকে তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভয়ঙ্কর রোষানলে পড়েছেন সাধারণ মানুষের। এর কারণ তাঁর কিছু বক্তব্য। সেখানে তিনি অভিমান থেকেই হোক আর যে কোনও কারণেই হোক না কেনো জিজ্ঞেস করে বসেছেন “হু ইজ কেকে ম্যান?” আর কী! এটাই হলো তাঁর কাল।

    তারপরেই যদিও গতকাল এক সাংবাদিক সম্মেলনে ক্ষমা চেয়েছেন শেষমেশ। তবুও সেই রেশ কাটছেই না। কিন্তু এর মধ্যেই আবার এক নতুন বিতর্ক। এবার আলোচনায় বাঙালি গায়িকা স্বাগতালক্ষ্মী দাশগুপ্ত। রূপঙ্কর বাগচী যেমন বলেন হু ইজ কেকে….সেই সুর টেনেই এবার স্বাগতালক্ষ্মীকে জিজ্ঞেস করা হল, ‘হু ইজ স্বাগতালক্ষ্মী’। কিন্তু কেনো?

    এক ছাত্রের বৌভাতের অনুষ্ঠানে গিয়েছিলেন গায়িকা। তাঁরা শিল্পীকে এতটাই ভালোবাসেন যে নীচ থেকে তাঁকে নিয়ে এসেছেন। এরপর বর-বৌয়ের মা হঠাৎ করেই তাঁর দিকে আঙুল তোলেন। আর চিৎকার করে বলেন হু ইজ স্বাগতালক্ষ্মী। বেড়িয়ে যান এখান থেকে”। এই কথাগুলো তাঁকে খুব আঘাত কর। অপমানিতবোধ হয়। তিনি ওখান থেকে বেড়িয়ে যান।

    স্বাগতালক্ষ্মী জানিয়েছেন তিনি থানা পুলিশ করবেন না কারণ তাঁর মনে হয় যে বলেছে অর্থাৎ পাত্রীর মা তিনি হয়তো সুস্থ নয়। নাহলে মেয়ের শ্বশুরবাড়িতে এসে এই রকম আচরণ কেউ করতে পারে না।

    আসলে নাগেরবাজেরে স্বর্ণাশিস মুখোপাধ্যায়ের বৌভাতের অনুষ্ঠানে যান স্বাগতালক্ষ্মী। প্রিয় শিল্পীকে সামনে থেকে দেখে আত্মহারা অনেকেই। আচমকাই তৈরি হয়ে যায় এক অদ্ভুত পরিবশ। সবার নজর তাঁর দিকে চলে যেতেই রেগে যান ওই মহিলা। অনুষ্ঠানে উপস্থিত অনেকেই তৎক্ষণাৎ পুলিশে অভিযোগ করতে চেয়েছিলেন। কিন্তু না বলেন শিল্পী।