জয়েন গ্রুপ

বাংলা সিরিয়াল

এই মুহূর্তে

Bangla Serial

অসুস্থ ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তর মা! টাকার কারণে মাকে বাড়ি ফেরাতে পারছেন না অভিনেত্রী!

টলিপাড়ায়(Tollywood) নেমে এসেছে দু’সংবাদের ঘন কালো মেঘ। একের পর এক দু’সংবাদ শোনা যাচ্ছে টলিউডে। ইতিমধ্যেই প্রয়াত হয়েছেন বাংলার জনপ্রিয় অভিনেত্রী শ্রীলা মজুমদার। অসুস্থ অবস্থায় চিকিৎসাধীন সত্যজিৎ রায়ের চারুলতা অর্থাৎ মাধবী মুখোপাধ্যায়। বাংলার গৌরব, প্রাক্তন অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলির মায়ের অসুস্থতার খবরও শোনা যাচ্ছিল টলিপাড়ায়। ইতিমধ্যেই জানা গেছে অসুস্থ বাংলা সিনেমার জগতেই উজ্জ্বল নক্ষত্র অর্থাৎ ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তর(Rituparna Sengupta) মা।

বাংলা সিনেমার স্বনামধন্য অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তর মা নন্দিতা সেনগুপ্ত বর্তমানে চিকিৎসাধীন। দুশ্চিন্তায় ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত, ইতিমধ্যেই তিনি হারিয়েছেন তার অতি কাছের, প্রিয় দিদি শ্রীলা মজুমদারকে সেই শোক থেকে উটতে না উঠতেই নতুন ঝড় আছড়ে পড়েছে তার জীবনে। শোনা যাচ্ছে হাসপাতাল থেকে কিছুতেই ছাড়া পাচ্ছেন না নন্দিতা সেনগুপ্ত। অসুস্থ তার মা অনেক চেষ্টা করেও মাকে বাড়ি নিয়ে যেতে পারছেন না ঋতুপর্ণা। সেই বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন তিনি সংবাদিকদের সামনে।

হাসপাতালের বিরুদ্ধে অসহযোগিতার অভিযোগ এনেছেন অভিনেত্রী। জানা গেছে ২৫শে জানুয়ারি অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তর মা দক্ষিণ কলকাতার একটি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন অসুস্থতার কারণে। পরিবার সূত্রে জানা গেছে উচ্চ রক্তচাপ, মূত্রনালীর সমস্যা এবং সুগারের জন্য তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল বৃহস্পতিবার তাকে ডাক্তার ছুটি দিয়ে দিলেও মাকে হাসপাতাল থেকে বাড়ি আনতে পারছেন না অভিনেত্রী। পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন বীমা সংস্থা তাদের সঙ্গে অসহযোগিতা করছেন। হাসপাতালের বিল নিয়ে বীমা সংস্থার সমস্যা কারণে ছুটি দেওয়ার পরও বাড়ি ফিরতে পারছেন না নন্দিতা সেনগুপ্ত।

এই বিষয়ে ঋতুপর্ণার ভাই প্রদীপ্ত সেনগুপ্ত সাংবাদিকদের জানিয়েছেন “হাসপাতাল একের পর এক নথি চেয়ে যাচ্ছে, সব দেওয়ার পরও বীমা সংস্থা বলছেন ক্যাশলেস করা যাবে না। অথচ যা বিল হয়েছে সবটাই বীমা সংস্থার দেবার কথা। এদিকে মায়ের বয়স হয়েছে, তিনি আর হাসপাতালে থাকতে চাইছেন না। অথচ একের পর এক কারণে হাসপাতাল আটকে রাখতে তার মাকে। বাড়ছে হাসপাতালের বিল।”

মাকে হাসপাতালে ভর্তি করে শহরের বাইরে যান অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা। বৃহস্পতিবার ফিরে এসে তিনি সাংবাদিকদের জানান তিনি বুঝতে পারছেন না, এরকম কেন হচ্ছে। বীমা এজেন্ট এর সঙ্গে জড়িত বলে তিনি জানিয়েছেন। বীমা সংস্থা টাকা না দিলে আজই তিনি বিল মিটিয়ে মাকে নিয়ে আসবেন পরে বীমা সংস্থায় টাকা ফেরত দিতেও অনুরোধ জানাবেন।

হাসপাতাল থেকে জানানো হয়েছে সমস্যাটি বীমা সংস্থার। রোগীর পরিবারের সঙ্গে তাদের কোনও সমস্যা হয়নি। আশা করব ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত শীঘ্রই তার মাকে বাড়ি ফিরিয়ে আনতে পারবেন।

Ruhi Roy

রুহি রায়, গণ মাধ্যম নিয়ে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর পাশ। সাংবাদিকতার প্রতি টানে এই পেশায় আসা। বিনোদন ক্ষেত্রে লেখায় বিশেষ আগ্রহী। আমার লেখা আরও পড়তে এখানে ক্লিক করুন।