Bangla Serial

এবার সম্পূর্ণ পাল্টে যাবে সূর্য! লাবণ্যর থেকে চুপি চুপি সোনার ব্যাপারে সব জেনে গেছে! আসছে বহু প্রতীক্ষিত পর্ব

স্টার জলসার জনপ্রিয় এক চর্চিত ধারাবাহিক হল ‘অনুরাগের ছোঁয়া’ (Anurager Chhowa)। বেশকিছুদিন একইভাবে চলার পর এবার গল্পে এক নতুন মোড় আসতে চলেছে। সূর্য (Surjo)দীপার (Dipa) মধ্যে সমস্যার দরুন কষ্ট পাচ্ছে তাদের খুদে দুই সন্তান। একদিকে রূপা সকল সত্যি জানার পরও নিজের বাবাকে অর্থাৎ সূর্যকে বাবা বলে ডাকতে পারছে না। অন্যদিকে সোনা নিজের মা অর্থাৎ দীপার কাছে যেতে পারছে না। লাবণ্য ও দীপার জন্য দুই সন্তানকেও মুখ বুঝে সব সহ্য করতে হচ্ছে। বলাই যায়, দীপা ও সূর্যের মাঝে পড়ে এখন তাদের দুই খুদে সন্তানের শোচনীয় মানসিক অবস্থা। এদিকে সেনগুপ্ত বাড়ির সকলেই চাইছে যাতে সূর্য-দীপা এক হয়।

অন্যদিকে, মিশকা দীপা ও সন্তানদের থেকে সূর্যকে আলাদা করতে আরও এক নতুন নাটক করল সূর্যের সামনে। প্রথম থেকেই বাংলার সেরা তকমা পেয়ে আসছে এই ধারাবাহিক। যদিও বর্তমানে একইরকমের কিছু পর্বের জন্য বোরিং হয়ে উঠেছে ধারাবাহিক। তবে এবার শোনা যাচ্ছে, গল্পে খুব শীঘ্রই আসতে চলেছে নতুন মোড়। ইতিমধ্যে দুই মেয়ের সামনে এসেছে সূর্য ও দীপার নানান সত্য। কিন্তু সূর্য এখনও জেদের বশে অন্ধ হয়ে বসে রয়েছে। দীপার প্রতি ভালোবাসা থাকলেও পুরোনো কথাকে নিয়েই সে দীপার প্রতি এখনও রেগে। তবে এবার লেখিকা গল্পের মোড় ঘোরাতে চলেছে।

গল্পের আসছে নতুন মোড়

‘অনুরাগের ছোঁয়া’র একঘেঁয়ে পর্ব দেখে এবার বিরক্তি জন্মেছে দর্শকদের মনেও। প্রথম থেকেই সূর্য ও দীপার মধ্যে এই দূরত্ব তৈরী হওয়ার কারণ মিশকা, যে সূর্যের বেস্ট ফ্রেন্ড ছিল। প্রথমদিন থেকে সূর্যকে বিয়ে করতে চেয়েছে সে। আর সেই সূর্যকে বলেছিল, সে কোনোদিন বাবা হতে পারবে না। আর তাই দীপা প্রেগনেন্ট হতে সেই সন্তান নিজের নয় ভেবে তাকে সেনগুপ্ত বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়। তবে গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে, খুব শীঘ্রই নতুন অধ্যায়ের দিকে এগোতে চলেছে ‘অনুরাগের ছোঁয়া’।

ফের মিশকার কথায় সূর্য ভুল বুঝলো দীপাকে

রূপা-সোনা দুজনের মনেই এখন নিজের মা – বাবাকে একসাথে দেখার ইচ্ছা। এদিকে মিশকা সূর্যের মনে সন্দেহের বীজ ঢোকালো। মিশকা বলে, লাবণ্য সূর্যকে মিথ্যা বলেছে, সোনা অনাথ নয়। সোনা ও রূপা দুজনেই দীপা ও কবিরের সন্তান। সোনার মধ্যে দীপার অনেক মিল রয়েছে। আর তাই দীপা সূর্যের কাছে সোনার জন্য মায়ের অধিকার ফলায়। আসলে তারা ইচ্ছা করেই সকলে সূর্যের কাছে সব লুকিয়েছে। মিশকার মুখ থেকে সব শুনে সূর্যের আগের কথা মনে পড়তে শুরু করে। সে সোনার মধ্যে দীপার মুখ দেখতে পায়।

আরও পড়ুনঃ দেব-কোয়েল এখন ফ্লপ, বাংলা টেলিভিশনের সেরা জুটি হতে চলেছে দেব-সৌমীতৃষা! দাবি ‘দেবতৃষা’ ভক্তদের

সত্যের মুখোমুখি সূর্য

মিশকার মুখ থেকে শোনার পর এবার লাবণ্যের মুখ থেকে একই কথা শুনল সূর্য। রূপা দীপাকে বারংবার প্রশ্ন করতে থাকে, কেন সে সূর্যকে বাবা বলে ডাকতে পারবে না? দীপা তার কোনও উত্তর দিতে পারে না। আর তখন লাবণ্য বলে, এতে দীপার কোনও দোষ নেই। সোনা-রূপার জন্মের সময় সে সোনাকে রূপা ও দীপার কাছ থেকে আলাদা করে সূর্যের কাছে নিয়ে যায়। তার জন্যই আজ সোনা-রূপা আলাদা থাকে। আর লাবণ্যের সেই কথাই আড়াল থেকে শুনে নেয় সূর্য। সূর্য সকল কথা শুনে রেগে যায়, সকলকে ভুল বোঝে। সে বলে, ‘এতদিন সকলে আমরা ভালো রূপ দেখেছে, এবার আমার খারাপ রূপ দেখতে পাবে’। তবে কি সত্যি জানার পর সোনাকে দূরে ঠেলে দেবে সূর্য?

Rimi Datta

রিমি দত্ত কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর। কপি রাইটার হিসেবে সাংবাদিকতা পেশায় চার বছরের অভিজ্ঞতা।