জয়েন গ্রুপ

বাংলা সিরিয়াল

এই মুহূর্তে

প্রথম পাতা

Bangla Serial

কেউ কাজের চাপে, কেউ করবেন শো! নতুন বছরে পর্ণা-জগদ্ধাত্রীদের কী প্ল্যান?

দু-চার দিন নয়, গোটা চব্বিশটা ভাল হোক সকলের। তবে নতুন বছরে ছোট পর্দার সেলেবরা কী করে কাটালেন? এক নজরে দেখে নেওয়া যাক ছোট অত্যন্ত জনপ্রিয় অভিনেত্রীদের বর্ষবরণের প্ল্যান কী?

অঙ্কিতা মল্লিক (Ankita Mallick): ‘জগদ্ধাত্রী’ খ্যাত অভিনেত্রী অঙ্কিতা জানান, বর্ষবরণের রাতটা তাঁর কেটেছে স্কুলের বন্ধু বান্ধবদের সঙ্গে। ছেলেবেলার নস্ট্যালজিয়ায় গা ভাসাতে স্বছন্দ্য পর্দার ইন্টেলিজেন্স অফিসার জ্যাস সান্যাল। ১বছরের প্রথমদিন সেটের সবার সঙ্গে হই হুল্লোড় করে কাটানোর প্ল্যান তাঁর।

পল্লবী শর্মা (Pallavi Sharma): ‘নিম ফুলের মধু’র পর্ণাকে চিনিয়ে দেওয়ার প্রশ্নই ওঠে না। বেঙ্গল টপার সিরিয়ালের নায়িকা এখন দর্শকদের ঘরের মেয়ে হয়ে উঠেছে। তবে পল্লবীর পরিচিতি বেশি ‘জবা’ নামেই। ৩১ তারিখটা বাড়িতেই কাটিয়েছেন অভিনেত্রী। ১লা জানুয়ারি ইউনিটের সকলের সঙ্গেই একটা ঘুরতে যাওয়ার প্রোগ্র্যাম ছিল। কিন্তু ছুটি ক্যানসেল হওয়ায় ঘুরতে যাওয়ার প্ল্যানটা আর বাস্তবায়িত করা যায়নি।

শ্বেতা ভট্টাচার্য (Sweta Bhattacharya): বাড়িতেই ছোট্ট করে গেট টুগেদার আয়োজন করেছিলেন অভিনেত্রী শ্বেতা ভট্টাচার্য। সঙ্গে ছিলেন তাঁর প্রেমিক রুবেল দাস। এদিন নিউ ইয়ার স্পেশ্যাল খাওয়াদাওয়া তো ছিলই। কেক কেটেই নতুন বছর বরণ করেছেন তাঁরা। আর ছিল আতসবাজি।

তৃণা সাহা(Trina Saha): এদিন সারাদিন তৃণা ব্যস্ত ছিলেন শ্যুটিং-এ। রাতে ছিল বন্ধুবান্ধবদের সঙ্গে পার্টি প্ল্যান। সঙ্গে ছিলেন নীলও। বন্ধুদের সঙ্গেও নতুন বছর বরণ করে নিয়েছেন টলিউডের হট কাপল।

অহনা দত্ত (Ahona Dutta): বছরের শেষের দিনটা কাজের মধ্যেই কেটেছে মিশকা ওরফে অহনা দত্তের। মেদিনীপুর, কৃষ্ণনগরের মানুষরা তাঁকে ভীষণ ভালোবাসে। তাই শো করেই কাটছে তাঁর। সঙ্গে রয়েছেন সর্বক্ষণের সঙ্গী দীপঙ্কর।

শ্রীপর্ণা রায় (Shreeparna Ray): সদ্য গাঁটছড়া বেঁধেছেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী শ্রীপর্ণা রায়। তাই নতুন বছরে বরের সঙ্গে হানিমুনে ব্যস্ত নায়িকা। যদিও তাঁদের এই ঘোরার সঙ্গী প্রায় ১৫জন। সবাই বেশ মজার মানুষ। ৩১ ডিসেম্বর সবাই মিলে বারবিকিউ বানিয়েছিলেন। সেই সঙ্গে চলেছে হরদম খাওয়া দাওয়া। প্রতি বছর বাড়িতে কাটলেও, এবছর নতুন করে বছরকে ওয়েলকাম করছেন নববধূ শ্রীপর্ণা।

Joyee Chowdhury

কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংবাদিকতা ও গণযোগাযোগ-এ স্নাতকোত্তর। বিনোদন ও সংস্কৃতি বিভাগই মূল ক্ষেত্র। আমার লেখা আরও পড়তে এখানে ক্লিক করুন।