Connect with us

    Bangla Serial

    মেঘ-নীলের শুভ বিবাহ! ‘মেঘ দ্বিতীয় বারের মতো তোমার হাতে তুলে দিলাম!’ আশঙ্কায় কাঁপছেন অনিন্দ্যবাবু

    Published

    on

    icche putul

    জি বাংলার (Zee Bangla) জনপ্রিয় ধারাবাহিক ইচ্ছে পুতুলে (Icche Putul) অবশেষে হতে চলেছে মেঘ আর নীলের বিয়ে। কিন্তু বিয়ের ব্যাপারে কিছুই জানেনা মেঘ আর নীল। দুজনেরই মনেই নেমে এসেছে একে অপরের থেকে আলাদা হয়ে যাওয়ার বেদনা।ইতিমধ্যেই গায়ে হলুদ হয়ে গেছে মেঘের। নীলের বাড়ি থেকে হলুদ আসতে দেরি হওয়ায় ময়ূরী ফন্দি এটেছিল পাত্রের বাড়িতে ফল করার অছিলায় সে জেনে নেবে পাত্র কে? কিন্তু মধুমিতা দেবী সেটা বুঝতে পারে যায়।

    তাই ময়ূরীকে তিনি নীলের বাড়ির কথা কিছুই জানাননি। ওদিকে হলুদ আসার সঙ্গে সঙ্গে মেঘের বাড়িতে এসে গিনি আর জিষ্ণুও। তাদের দেখে বেশ অবাক হয় ময়ূরী। গিনিকে জিজ্ঞাসা করায় সে জানিয়ে দেয় মেঘের সঙ্গে দেখা করতে এসেছে সে। যদিও গিনি কথায় বিশ্বাস করেনা ময়ূরী আর রূপকে বল একটা বন্দুকের ব্যবস্থা করতে। রূপও ব্যবস্থা করে দেয় বন্দুকের।

    এদিকে বাবার কাছে গিয়ে কান্নাকাটি করে মেঘ বলে সে এখনও নীলকে ভুলতে পারেনি। মেয়ের কথা শুনে অনিন্দ্য বাবু হাসলেও মেয়ের কাছে প্রকাশ করেননা কিছুই। খালি বলেন সব ভালো হবে। ওদিকে গাঙ্গুলি বাড়িতেও একই অবস্থা নীলের। ঠাম্মিকে সে বলে তার এই সিদ্ধান্ত নেওয়া ঠিক হয়নি। কিন্তু ঠাম্মি বলে তার জার সঙ্গে বিয়ে হচ্ছে সে খুব ভালো আর তাকে খুশি রাখবে। বিয়ের সময় নীলকে দেখে অবাক হয় মেঘ। খানিকটা অভিমানও করে।

    আরও পড়ুনঃ হয়ে গেল শুভ পরিণয়! প্রেমের সপ্তাহে বিয়ে সারলেন ‘নিম ফুলের মধু’ ধারাবাহিকের নায়ক

    কিন্তু তাকে গিনি বুঝিয়ে বলে এই বিষয়ে নীল কিছু জানতো না আর সব প্ল্যান ঠাম্মির। ঠাম্মির নাম শুনে শান্ত হয় মেঘ এবং তাদের বিয়েও সম্পন্ন হয়ে যায়। অনিন্দ্য বাবু মেঘকে নীলের হতে তুলে দিয়ে বলে “আমি আমার মেয়েকে দ্বিতীয়বারের জন্য তোমার হাতে তুলে দিলাম ওকে খুশি রেখো।” সেই শুনে নীলও জানায় মেঘকে সে খুব যত্নে রাখবে সেই কথায় ঠাম্মিও ঠাট্টা করতে থাকে তাদের সঙ্গে এমন সময় ময়ূরী মেঘকে টেনে নিয়ে তার মাথায় বন্দুক ঠেকায়। কি হবে মেঘের? নীল কি বাঁচাতে পারবে তাকে? অবশেষে কি গ্রেফতার হবে ময়ূরী?