Connect with us

    Bangla Serial

    Neem Fuler Modhu: স্বামী-স্ত্রী বাথরুমে রোম্যান্সে মত্ত এদিকে বাবুউউর মা বলে উঠলো বাবুউউ দরজা খোল! “বাবুউউর আর বাবু হতে দেবে না বাবুউউর মা”, অস্থির নেট দুনিয়া

    Published

    on

    neem

    জি বাংলার নিম ফুলের মধু ধারাবাহিক কিন্তু বেশ ভালোই টি আর পি কুড়িয়ে নিচ্ছে। এই ধারাবাহিকটি উত্তর কলকাতার খুব সেকেলে পরিবারকে তুলে ধরা হয়েছে। সেই পরিবারটি অত্যন্ত মধ্যবিত্ত বাড়ির কথা তুলে ধরা হয়েছে। আর মধ্যবিত্ত বাড়ি নিয়ে বরাবরই বহু কাব্য হয়েছে।

    মধ্যবিত্ত বাড়ির সবকিছু খুব গুছিয়ে রাখা হয়। একটা ডালের দানা থেকে এক বাটি চাল সবই খুব হিসেবে রাখা হয়। আগে পাড়ায় পাড়ায় চুল বিক্রি করে ঘটি, বাটি, গামলা সব কেনাকাটি করা হতো। কিন্তু এখন তার চল অনেকটাই চলে গিয়েছে।

    আর ঠিক তেমন ভাবে সম্পর্কগুলোকেও খুব আগলে রাখা হয়। আর এই সম্পর্ক আগলে রাখা নিয়েই ধারাবাহিকটি যেন অতি চেনা অথচ অচেনা ছন্দে এগিয়ে চলেছে। সাধারণত ধারাবাহিকে সবসময় নানা ধরনের প্রেম, পরকীয়া বা জোর করে বিয়ে এইসব দেখা যায়। কিন্তু নিম ফুলের পাতায় তা হয়নি। বরং খুব সাদামাটা অ্যারেঞ্জ ম্যারেজ আর তা থেকেই প্রেম দেখানো হয়েছে।
    marriage

    প্রসঙ্গত এই ধারাবাহিকে নায়িকার নাম পর্ণা, যে চরিত্রে টলি অভিনেত্রী পল্লবী শর্মাকে অভিনয় করতে দেখা যাচ্ছে। আর নায়কের নাম সৃজন, ওরফে বাবু। এই চরিত্রে জনপ্রিয় টেলি অভিনেতা রুবেল দাসকে দেখা যাচ্ছে। তবে আরও একটা চরিত্র, যে চরিত্রে দর্শকদের বেশ ভালো মতো ফোকাস যাচ্ছে সেটি হল বাবুর মা। একদম মধ্যবিত্ত বাড়ির দজ্জাল শ্বাশুড়ি।
    sasuri

    আর এই বসন্তকালে জি বাংলার “মন রাঙানো দোল”- এ নিম ফুলের মধুর স্পেশাল এপিসোডে দেখা যাচ্ছে সৃজন বাথরুমে স্নান করতে ঢুকেছে ঠিক তখনই ভুল করে পর্ণাও বাথরুমে ঢুকে যায়। এবার বউকে আর যেতে দিতে চায়নি বাবু। কিন্তু ঠিক তখনই বাইরে থেকে ডাক আসে, “বাবু”। আর ওমনি ঘাবড়ে যায় দুজনে।
    Screenshot 20230304 084610 Google 1

    এমনকী তাঁরা দুজন একসঙ্গে বাথরুমে রয়েছে বলে দরজা ভেঙে দেওয়ার কথাও উঠেছে। আর এই প্রোমো দেখে তো দর্শকরা বেজায় খচে গিয়েছে। একজনতো লিখেই বসলেন, “বাবুর মা বাবুকে গামলায় বসিয়ে স্নান করিয়ে দিলেই তো পারে। কেনো যে এমন একা ছাড়ে কে জানে? জানে যখন বাবুকে একা ছাড়লে বাবু অন্যের আঁচল ধরে স্নান করতে চলে যায়! মা মঙ্গলচন্ডী আর কত সহ্য করবে বাবুর মা কে? বাবুর বাবা সহ্য করছে বলে সবাইকেই করতে হবে!”