Connect with us

Bangla Serial

Kar Kachhe Koi Moner Kotha: নাচের অনুষ্ঠানে যাবে শিমুল, উৎসাহী শাশুড়িও! হঠাৎ অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে পরাগ! ঝাকাস পর্ব

Published

on

kkmk new promo

এই মুহূর্তে বাংলা টেলিভিশনের দুনিয়ায় অন্যতম দর্শকপ্রিয় ধারাবাহিকের নাম কার কাছে কই মনের কথা (Kar Kachhe Koi Moner Kotha)। এই বাংলা ধারাবাহিকটির (Bengali Serial) প্রত্যেকটি পর্ব‌ই এই মুহূর্তে দর্শকদের কাছে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে। বাঙালি দর্শক অত্যন্ত মন দিয়ে এই ধারাবাহিকটি এই মুহূর্তে দেখছেন।‌

বলাই বাহুল্য এই ধারাবাহিকের একটি পর্বও এখন আর মিস করতে চাননা এই ধারাবাহিকের দর্শকরা। এতটাই উত্তেজনায় ভরা পর্ব এই মুহূর্তে দেখা যাচ্ছে এই ধারাবাহিকটিতে। উল্লেখ্য, বধূ নির্যাতনের মতো স্পর্শকাতর বিষয়কে টেলিভিশনের পর্দায় দেখিয়ে টিআরপিতে কামাল করেছে এই ধারাবাহিকটি।

চলতি সপ্তাহের টিআরপি তালিকা অনুযায়ী টিআরপিতে দারুন পারফর্ম করেছে কার কাছ ক‌ই মনের কথা। গত সপ্তাহে পঞ্চম স্থানে থাকলেও এই সপ্তাহে চতুর্থ স্থানে উঠে এসেছে এই ধারাবাহিকটি। দর্শকদের কাছে দারুন জনপ্রিয় হয়েছে এই ধারাবাহিক। আর তাই এই সাফল্য।

বিয়ের পর থেকেই শ্বশুরবাড়িতে অত্যাচারিত শিমুল। স্বামীর হাতে বৈবাহিক ধর্ষণের শিকার হয়ে মার খেয়ে সে সিদ্ধান্ত নেয় স্বামী পরাগকে সে শাস্তি পাইয়েই ছাড়বে। শিমুলের এই লড়াইয়ে তার পাশে রয়েছে তার পাড়ার বন্ধুরা। এরপর পুলিশের কাছে সহায়তা চেয়েও না পেয়ে শিমুলের পাড়ার বন্ধুরা তাকে নিয়ে যায় ডিএম-এর কাছে।‌ পুলিশ বাড়ি বয়ে এসে শিমুলকে দোষারোপ করলেও, ডিএম কিন্তু মন দিয়ে শিমুলের অভিযোগ শুনেছেন।

তিনি শিমুলের অভিযোগের ভিত্তিতে পরাগ-পলাশকে চিঠি পাঠাবেন বলেও শিমুলকে আশ্বস্ত করেন। একই সঙ্গে শিমুলের প্রতিভা সম্পর্কে জ্ঞাত হয়ে তিনি শিমুলকে নাচ নিয়ে এগিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন। এবং তাকে একটি অনুষ্ঠান করার অফার‌ও দেন। কিন্তু সম্প্রতি প্রকাশ্যে আসা প্রমো বলছে সেই অনুষ্ঠান হয়ত করতে যেতে পারবেনা শিমুল। কারণ নতুন ফন্দি এঁটেছে পরাগ।

আরও পড়ুনঃ হলটা কী? নিজের প্রিয় বন্ধুর সঙ্গেই ঝগড়া করছে সৌমীতৃষা! দেখুন

নতুন প্রোমোতে দেখা গেছে, অনুষ্ঠানের জন্য যখন শিমুল পুতুলকে সাজাচ্ছে সেই সময় শিমুলের ফোনে একটা অজানা নম্বর থেকে ফোন আসে এবং সেই ব্যক্তি ফোনে জানায় পরাগ ব্যানার্জি অসুস্থ তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হবে এই খবর শুনে উৎকণ্ঠিত হয়ে পড়ে শিমুল। অন্যদিকে দেখা যায় ওই ব্যক্তির কাঁধে হাত রেখে মুচকি হাসছে পরাগ। অন্যদিকে অনুষ্ঠানের সময় হয়ে গেছে। কিন্তু গিয়ে পৌঁছাতে পারেনি শিমুলরা। ভীষণ রকম অসন্তুষ্ট হয়েছেন ডিএম ম্যাডাম। এবার কী হবে?