Bangla Serial

তুখোড় অভিনয়েও সেরা নায়িকা হল না পর্ণা! জগদ্ধাত্রীর হাতে পুরস্কার উঠতেই ক্ষুব্ধ জি বাংলার দর্শকরা!

জি বাংলা সোনার সংসার অ্যাওয়ার্ড (Zee Bangla Sonar Songsar Award) টেলি দর্শকদের জন্য অন্যতম প্রতীক্ষিত এক পুরস্কার সন্ধ্যা। জি বাংলার (Zee Bangla) নিয়মিত দর্শকেরা সোনার সংসারের অপেক্ষায় থাকেন সারা বছর ধরেই। প্রিয় অভিনেতা অভিনেত্রীদের হাতে পুরস্কার উঠতে দেখে খুশি হন সবাই। সাধারণত সোনার সংসার অ্যাওয়ার্ড তুলে দেওয়া হয় দর্শকদের ভোট এবং বিশেষজ্ঞ মহলের যৌথ বিচারের মাধ্যমে। গতকাল‌ সম্প্রচারিত হয়েছে সোনার সংসার অ্যাওয়ার্ড। যা দেখার পর খুশি হওয়ার বদলে বিক্ষুব্ধ দর্শকেরা।

জি বাংলার জনপ্রিয় ধারাবাহিকগুলির সমস্ত অভিনেতা-অভিনেত্রীরা একজোট হয়েছিলেন সোনার সংসার অ্যাওয়ার্ডে। তারকাদের সমবেত উপস্থিতিতে উজ্জ্বল হয়ে ওঠে পুরস্কার মঞ্চ। এই সোনার সংসার সম্মানের বিভিন্ন ক্যাটাগরি থাকে। তবে সেরা নায়ক, সেরা নায়িকা, সেরা ধারাবাহিক ও সেরা পরিবার অ্যাওয়ার্ড কার হাতে উঠল তাই নিয়ে দর্শন উন্মোদনা তুঙ্গে থাকে।

বরাবরের মতো কত গতকালও সেরা অভিনেত্রীর সম্মান কে পান, সেদিকে নজর রেখেছিলেন টেলি দর্শকেরা। আর সেখানেই জমলো তীব্র অসন্তোষ।‌ সেরা অভিনেত্রীর সম্মান থেকে বঞ্চিত হলেন ‘নিম ফুলের মধু’র লিড অভিনেত্রী পল্লবী শর্মা ওরফে পর্ণা। অন্যদিকে, সেরা অভিনেত্রীর সম্মান উঠলো ‘জগদ্ধাত্রী’ ধারাবাহিকের অভিনেত্রী অঙ্কিতা মল্লিকের হাত।

দর্শক মহলের মত, জি বাংলার সেরা অভিনেত্রীর যোগ্য দাবিদার ছিলেন পল্লবী শর্মা। তাঁকে এভাবে বঞ্চিত করে মোটেই ঠিক করেনি জি বাংলা কর্তৃপক্ষ। বর্তমানে পল্লবী শর্মার হাত ধরেই নিম ফুলের মধু বেঙ্গল টপারের শিরোপা জিতেছে। শুধু তাই নয়, দীর্ঘদিন ধরে প্রথম পাঁচে রাজত্ব করছে এই ধারাবাহিক। ‌

আরো পড়ুন: নিজে বিয়ে করে দীপা-অর্জুনের বিয়ে ভাঙতে উদ্যত ভিলেন সূর্য! তড়িঘড়ি রওনা দিল কলকাতার উদ্দেশ্যে!

এখন দর্শকমহলের তীব্র অসন্তোষের জায়গা হল এটাই যে, জি বাংলার অন্যতম ট্যালেন্টেড অভিনেত্রী পল্লবী। এমনকি নিম ফুলের মধুর মধ্যমণি তিনিই। তাই অঙ্কিতা মল্লিকের পাশাপাশি পল্লবী শর্মার হাতে ওঠা উচিত ছিল তাই জারশানালের পাশাপাশি পল্লবী শর্মার হাতে ওটা উচিত ছিল সেরা অভিনেত্রী সম্মান। তবে তা যখন হলই না, তখন অনুরাগীদের একটাই বক্তব্য, পল্লবীর সঙ্গে দর্শকের ভালোবাসা রয়েছে।
এটাই তাঁর সবচেয়ে বড় স্বীকৃতি।

Joyee Chowdhury

কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংবাদিকতা ও গণযোগাযোগ-এ স্নাতকোত্তর। বিনোদন ও সংস্কৃতি বিভাগই মূল ক্ষেত্র।