Connect with us

    Bangla Serial

    শতদ্রু জীবনে ফিরে আসতেই পরাগকে ডিভোর্স দিল শিমুল, আশাহত মধুবালা 

    Published

    on

    porag shimul shatadru

    জি বাংলার (Zee Bangla) জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘কার কাছে কই মনের কথা’ (Kar Kache Koi Moner Katha)। মেয়েদের বাস্তব জীবনের গল্প নিয়ে এগিয়ে চলেছে সিরিয়ালের গল্প। বিয়ের পর শ্বশুরবাড়িতে বধূ নির্যাতনের স্বীকার শিমুল। নিজের অনিচ্ছায় শুধুমাত্র বাড়ির লোকের মতামতেই পলাশকে বিয়ে করে সে।

    আর তারপরই শ্বশুরবাড়িতে এসে কঠিন পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে হয় তাঁকে। দেওর, শাশুড়ি এমন কী নিজের স্বামীও তার ওপরে মানসিক অত্যাচার শুরু করে। কিন্তু মুখ বুজে অত্যাচার করার পাত্রী শিমুল নয়। নিজের উপর হওয়া অত্যাচারের প্রতিবাদ করতে শুরু করে সে। আর এই মুহূর্তে, শাশুড়ির মন জয় করতে পেরেছে শিমুল।

    জমে উঠেছে শাশুড়ি বউমা সম্পর্ক। তবে শাশুরির মন পেলেও, এখনও স্বামী পরাগের ভালবাসা অর্জন করতে পারেনি সে। পরাগ এখন তাঁর ছাত্রী প্রিয়াঙ্কার প্রেমে হাবুডুবু খাচ্ছে। তাই বরের সঙ্গে সম্পর্ক এখনও মসৃণ হয়নি তাঁর। অপরদিকে,হালে শিমুলের প্রাক্তন প্রেমিক শতদ্রু সঙ্গে সম্পর্ক নিয়েও পলাশ ও শিমুলের মধ্যে তুমুল অশান্তি চলছে। শতদ্রু শিমুলের বোনের বিয়েতে গিয়ে পরাগের আসল রুপ দেখতে পেয়েছে।

    পরাগের এহেন রুপ দেখে শিমুলের বোনের বিয়েতে তাঁকে শতদ্রু শিমুলকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে বলে,“তোর যে শ্বশুরবাড়ি, তোকে এত কষ্ট দিয়েছে তোর উপর এত অত্যাচার করেছে সেসব না দেখেই সেই শ্বশুরবাড়ির জন্যই তুই আজ আমাকে লেজে খেলাচ্ছিস।” এ কথা শুনে অনেক ভাবনাচিন্তা করে শিমুল। প্রস্তাবে রাজি না হলেও শিমুল মনস্থির করে, এবার সময় এসেছে পলাশ ডিভোর্স দেওয়ার।

    আর সিদ্ধান্ত মতই কাজ। পরাগকে ডিভোর্স দিল শিমুল। আর তাতে মনক্ষুন্ন হলেন শাশুড়ি মধুবালা। তবে পরাগের এই অত্যাচারে শেষ পর্যন্ত অতিষ্ঠ হয়ে উঠল শিমুল? পরে কী নিজের ভাল চিন্তা করে শতদ্রুর প্রস্তাবে রাজি হবে শিমুল? সেটা জানার জন্য অপেক্ষা করতে হবে দর্শকদের।