Bangla Serial

শুধুই পরকীয়া! শিমুল, সুচরিতা, বিপাশা সবার বর‌ই পরকীয়ায় লিপ্ত! অদ্ভুত গল্প দেখে ক্ষিপ্ত নেটিজেনরা

জি বাংলার (Zee Bangla) জনপ্রিয় ধারাবাহিক কার কাছে কই মনের কথা (Kar Kache Koi Moner Kotha) শুরুতে ধারাবাহিকটি তার অন্য ধাঁচের কাহিনী এবং মহিলাদের জীবনের অভ্যন্তরীণ জীবনের সমস্যা নিয়ে ধারাবাহিকটি শুরু হওয়ায় ধারাবাহিকটি বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছিল কিন্তু বর্তমানে দিনে দিনে কমে যাচ্ছে ধারাবাহিকের টিআরপি। তাদের প্রিয় তারকাদের অভিনয় দেখতে পাওয়ার কারণ ছাড়া ধারাবাহিকের কাহিনী দেখে বা ভালোবেসে সেই ধারাবাহিকটি দেখার জন্য ধারাবাহিকটি দেখছে না কেউই।

তবে তাহলে হটাৎ কেন হচ্ছে এমন? কি বলছে নেটিজেনরা কেন তারা দেখতে দেখতে চাইছে না ধারাবাহিকটি? তার কারণ খুঁজতে গিয়ে তুলে ধরেছেন বেশ কিছু তথ্য, তাদের বক্তব্যের সপক্ষেও বেশ কিছু যুক্তি দিয়েছেন নেটিজেনরা। তারা জানিয়েছেন শুরুতে ধারাবাহিকটি আকর্ষণীয় থাকলেও ধারাবাহিকটি ক্রমেই হয়ে উঠেছে একঘেয়ে। শিমুলের ওপর বাবাবার অত্যাচার এবং তার শাশুড়ির বারবার তাকে ভুল বুঝে কষ্ট দেওয়া ছাড়া আর কিছুই দেখছে না ধারাবাহিক।

যেই বিষয়গুলি তুলে ধরার প্রযোজনা বা তারা শুরুতে ট্রেলারে দেখিয়েছিলেন পরে সেই বিষয়টিই দেখা যায়নি ধারাবাহিকে। অর্থাৎ একজন মেয়ের যে তাদের নিজস্ব স্বপ্ন ইচ্ছা থাকতে পারে, বিয়ে হয়ে যাওয়া মানেই সব স্বপ্নকে দমিয়ে ফেলা, বা নিজের সব শখ আল্লাহদকে মুছে শুধু শ্বশুরবাড়ির কথা চিন্তা করা, একজন মেয়েরও নিজের স্বপ্ন থাকতে পারে, তারও দিনের শেষ ইচ্ছে করে নিজের মনের কথাগুলো কাউকে খুলে বলার সেই বিষয়গুলোই তুলে ধরতে ব্যর্থ হচ্ছে ধারাবাহিকটি।

তাছাড়াও ধারাবাহিকটিতে আসল বিষয়টিকে বদলে দিয়ে দেখানো হচ্ছে পরকীয়া যা একদমই পছন্দ হচ্ছে না দর্শকদের। শিমুলের সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে থাকাকালীন পরাগের প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে সম্পর্কে জড়ানো থেকে শুরু করে, সুচরিতার স্বামীর অন্য মেয়ের সঙ্গে সম্পর্ক তারপর এখন বিপাশার স্বামীর বিপাশা থাকাকালীন অন্য মহিলাকে বিয়ে এমনকি পুতুলেরও হবু স্বামী অর্থাৎ তীর্থঙ্করেরও তার বৌদির সঙ্গে সম্পর্কের এক ভিন্ন সমীকরণ তুলে ধরেছে ধারাবাহিকটি।

যা মোটেই পছন্দ হচ্ছে না নেটিজেনদের। অনেকেই বলেছেন স্বামী স্ত্রী মতো এত গুরুত্বপূর্ন সম্পর্কে এইভাবে মলিন কেন করা হচ্ছে ধারাবাহিকে। হ্যাঁ এটা হয়তো সত্যি সমাজের কিছু শ্রেণীর মানুষ এরকম করে কিন্তু সকলেই তো এক নয় তবে কেন শুধু পরকীয়ায় বিষয়টিতেই জোর দিচ্ছে ধারাবাহিকটি। কেন ধারাবাহিকটি প্রমোট করছে পরকীয়ার মোত কুৎসিত বিষয়টিকে। সমাজে ভুল ধরানোর সঙ্গে ধারাবাহিক এমন হওয়া উচিত যা দেখে মানুষের ভাবনা চিন্তার পরিবর্তন হয়, সমাজের উন্নতি হয়।

তবে কেন ধারাবাহিকটি এই ধরনের প্রচার করছে, দাবি অধিকাংশ নেটিজেনদের। ধারাবাহিকে এইভাবে পরকীয়ার প্রচার বন্ধ করা উচিত। সমাজে মেয়েদের উন্নীত দিকটি বা অন্য দৃষ্টিভঙ্গি তুলে ধরা উচিত এইভাবে পরকীয়ার কথা না ছড়িয়ে বলেছে নেটিজেন। তাহলে আপনাদের এই বিষয়ে কি মত?

Ruhi Roy

রুহি রায়, গণ মাধ্যম নিয়ে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর পাশ। সাংবাদিকতার প্রতি টানে এই পেশায় আসা। বিনোদন ক্ষেত্রে লেখায় বিশেষ আগ্রহী।