Connect with us

    Bangla Serial

    সন্ধ্যার স্মৃতিভ্রমের জন্য দায়ী কে? খুঁজে পেতে মরিয়া সন্ধ্যা, লাহিড়ী বাড়ির সকলে কী লুকোচ্ছে তার থেকে?

    Published

    on

    sandhyatara promo

    স্টার জলসার ‘সন্ধ্যাতারা’ (Sandhyatara) ধারাবাহিকের গল্পে এসেছে বিরাট বদল। ধীরে ধীরে কাছাকাছি আসছে সন্ধ্যা আর নীল। দর্শক ধরে রাখতে গল্পে বিরাট রদবদল করল লেখিকা সাহানা দত্ত। সম্প্রতি সন্ধ্যার স্মৃতিভ্রম হয়েছে দেখে শুরু হয়েছে দর্শকদের উন্মাদনা। তারারও বিয়ে হয়ে গিয়েছে অঙ্কনের সঙ্গে। এরপর কোন দিকে মোড় নেবে দুই বোনের সম্পর্ক?

    সন্ধ্যা ও নীলকে আশীর্বাদ করতে জড়ো হয়েছে লাহিড়ী বাড়ির সকলে। বিজয়া মাঠান দুজনকে আশীর্বাদ করে সোনার এক জোড়া বালা দিতে যান, তখনই তা মাঠানকেই পরিয়ে দেয় সন্ধ্যা। বলে আমি এটা নিতে পারব না। তখন বাড়ির সকলে জিজ্ঞেস করে সন্ধ্যার সমস্যাটা কোথায়?

    উত্তর দিতে গিয়ে তেতে ওঠে সন্ধ্যা। বলে, “সমস্যাটা না আমি ঠিকই ধরেছি। আপনারা কেউ চান না আমার স্মৃতি ফিরুক। বাড়ি সুদ্ধু সকলে আমাকে আটকে রেখে দিয়েছেন, আমায় বাড়ির বউ বানিয়ে রেখেছেন। আর সেটা কেন আমি খুব ভাল করে জানি। আপনাদের মধ্যেই কেউ আমার স্মৃতি হারিয়ে যাওয়ার জন্য দায়ী। তাই তো চান না আমার স্মৃতি ফিরে আসুক।”

    সন্ধ্যা আরও বলে, “এতে এত আনন্দিত হওয়ার কিছুই নেই। আমিও প্রতিজ্ঞা করছি, আসল আসামীকে আমি ধরেই ছাড়ব।” সন্ধ্যার মুখে এই কথা শুনে থমকে যায় বাড়ির সকলে। অপরদিকে, ললিতা দেবী শ্বশুরবাড়িতে তারার চাপ সৃষ্টি করতে থাকে।

    আরও পড়ুন: ‘জগদ্ধাত্রী’ ধারাবাহিকে আসছে ধুন্ধুমার মহাপর্ব! জ্ঞান ফিরতেই জগদ্ধাত্রীকে সব সত্যি বলে দিল কৌশিকী

    আমরা আগের পর্বগুলিতে দেখেছি, তারার প্রতি সহানুভুতি থেকে নয়। আসলে বিজয়া মাঠানের সম্পত্তির জন্যই তারাকে বিয়ে করেছে অঙ্কন। তাই এবার ললিতা দেবীর দাবি, অঙ্কনের জন্য নতুন গাড়ি। তারাকে তাই জোর করতে থাকেন সে যেন বিজয়া মাঠানের থেকে চেয়ে একটা গাড়ি নেয়। নাহলে সকলে ঘুম থেকে উঠে হুলস্থুল বাঁধাবে তার ছেলে।