Bangla Serial

“যে তোমাকে ছেড়ে গেছে সে জাহান্নামে যাক!”, রণজয়কে ধমক দিয়ে সোহিনীকে কি কটাক্ষ করলেন শ্বেতা? মিশমির সঙ্গে সম্পর্কের গুঞ্জন কি তবে সত্যি?

জি বাংলার (Zee Bangla) জনপ্রিয় ধারাবাহিক কোন গোপনে মন ভেসেছে (Kon Gopone Mon Bheseche)। শুরু থেকেই ধারাবাহিকটি মন জয় করে নিয়েছে দর্শকদের। প্রথম থেকেই নতুন নতুন চমকের কারণে টিআরপি তালিকাতেও সেরা পাঁচের মধ্যে নিজেদের জায়গায় করে নিতে সক্ষম হয়েছে ধারাবাহিকটি। দ্বিতীয় সপ্তাহ থেকে টানা এখনও রাত সাড়ে ৮টার স্লটে লিড করছে ধারাবাহিকটি।

সম্প্রতি কোন গোপনে মন ভেসেছে ধারাবাহিকের হয়েছে রবীন্দ্র জয়ন্তীর মহাপর্ব। যেখানে রবীন্দ্রনাথের গানে মুখরিত হয়ে উঠেছিল গোটা জোড়াবাড়ি। রবীন্দ্রনৃত্য, সঙ্গে চিত্রাঙ্গদার নাটকে দেখা গেছিল অনিকেত এবং শ্যামলীকে। পর্বের নেপথ্যের গল্প জানতে বাংলার সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ্যম চলে গিয়েছিল শুটিংয়ের সেটে। জোর কদমে চলছিল প্রস্তুতি। শুটিংয়ের ফাঁকে নিজেদের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে মুখ খুললেন অভিনেতা শ্বেতা ভট্টাচার্য এবং অভিনেতা রণজয় বিষ্ণু।

বাস্তব জীবনে কবে বিয়ে করছেন অভিনেত্রী শ্বেতা ভট্টাচার্য, চূড়ান্ত ব্যস্ততার মধ্যে কি করে একে অপরের জন্য সময় বের করেন শ্বেতা আর রুবেল?

অভিনেত্রী শ্বেতা এই বিষয়ে জানিয়েছেন “রুবেল এখন বেশ ভালোই রয়েছে নিম ফুলের মধুর শুটিং করছে জমিয়ে একদম। আর আমাদের ইচ্ছা আছে জানুয়ারিতে বিয়ে করার কিন্তু ডেট এখনও ঠিক হয়নি। রবিবারে দেখা হয় এছাড়াও আমার আগে প্যাক আপ হলে আমি ওর ফ্লোরে যাই যদিও আমি কম যাই ওই বেশি আসে। আমাদের ইচ্ছা আছে কলকাতাতেই বিয়ে করার পুরো সাবেকিভাবেই।“

বাস্তব জীবনে কবে বিয়ে করছেন রণজয় বিষ্ণু, রণজয়ের এক্স নিয়ে কি বললেন শ্বেতা

অভিনেত্রী শ্বেতা জানিয়েছেন “আমরা সকলে দায়িত্ব নিয়েছি রণজয়দার জন্য মেয়ে খোঁজার।“ অভিনেতা রণজয় বলেছেন “হ্যাঁ সত্যিই দায়িত্ব নিয়েছে। আমি বলেছি আমি বিয়ে করব।“ অভিনেত্রী শ্বেতা জানান “বেছে দেওয়া মেয়েকে করুক বা বেছে দেওয়ার পর নিজের মনের মতো ভালোবেসে বিয়ে করুন। এরকম ব্যাপার নেই যে বেছে দিলেই বিয়ে করতে হবে।“ অভিনেত্রীর কথায় সম্মান, বিশ্বাস এবং বন্ধুত্ব থাকা উচিত প্রতেকটি সম্পর্কে।

অভিনেতা রণজয় বিষ্ণু বলেন, “আমি ভেবে দেখলাম আমি যখনই কাউকে ধরে রাখতে চাইছি সে চলে যাচ্ছে।“ তখনই অভিনেতাকে বাধা দিয়ে শ্বেতা কড়াভাবে অভিনেতাকে বলেন “আমি বলেছি না তোমায় যে চলে যায় সে তোমার ছিল না। আর যে থাকার সে হাজার খারাপের পরও তোমারই থাকবে। যে গেছে সে জাহান্নামে যাক। তোমাকে অত দুঃখ কাতর হতে হবে না। এর আগেও হয়েছে রণদার পার্সোনাল লাইফ এফেক্ট করে, কাজে এফেক্ট করে। রণদা খুব কোমল হৃদয়ের এবং ইমোশানাল। তাই এরকম প্রসঙ্গই না ওঠার দরকার নেই। পাস্ট পাস্ট। আমাদের এক্স ঘেঁটে লাভ নেই ভবিষ্যতের দিকে তাকাতে হবে।“

আরও পড়ুন: অপেক্ষার অবসান, সিঙ্গেল মাদারের গল্প নিয়ে ফিরছেন মোহনা মাইতি! প্রকাশ্যে কে প্রথম কাছে এসেছি ধারাবাহিকের প্রথম ঝলক!

তবে অভিনেতা রণজয়ের কথায়, যে গেছে তাঁর ভালো হোক। সবসময় ভালো হোক। আমার সঙ্গে সম্পর্ক ছিল সেটা নষ্ট হয়ে গেছে বলে কি তাঁর খারাপ চাইব? একদমই নয়। আপনি তো তাঁর সঙ্গে নিজের সারাটা জীবনের কথা ভেবে থাকেন তারপর হয়ত কোন কারণে তাঁর সঙ্গে সম্পর্ক নেই তাহলে তাঁর মানে এটা নয় যে তাঁর খারাপ চাইতে হবে। তাঁকে রেসপেক্ট করুন, তাঁর পার্টনারের সঙ্গে তাঁর সম্পর্ককে রেসপেক্ট করুন। এগুলো খারাপ ভালর উরধে সবটা মাপকাঠি দিয়ে বিচার কড়া যায়না।“

Ruhi Roy

রুহি রায়, গণ মাধ্যম নিয়ে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর পাশ। সাংবাদিকতার প্রতি টানে এই পেশায় আসা। বিনোদন ক্ষেত্রে লেখায় বিশেষ আগ্রহী। আমার লেখা আরও পড়তে এখানে ক্লিক করুন।