Bangla SerialEntertainment

জগদ্ধাত্রীকে অপমান করতে এসে জব্দ হয়ে গেল বৈদেহী এবং শকুন্তলা

Jagaddhatri Today Episode: জি বাংলার (Zee Bangla) জনপ্রিয় ধারাবাহিক জগদ্ধাত্রী (Jagaddhatri)। অ্যাকশন, ড্রামা দিয়ে ভরপুর এই ধারাবাহিকটি শুরু থেকেই নজর কেড়েছিল দর্শকদের। ধারাবাহিকে জ্যাস সান্যালের একের পর এক নতুন নতুন রহস্য উদঘাটন দারুণ উপভোগ করেন বাংলার গৃহিণীরা। ব্লুজ প্রোডাকশন হাউজের (Blues Production House) প্রযোজিত এই ধারাবাহিকটি একসময় টিআরপি তালিকার শীর্ষস্থানেও রাজত্ব করেছে একটানা। যদিও দিনে দিনে বেশ খানিকটা কমে গেছে ধরাবাহিকের টিআরপি। তবে এখনও বাংলার বহু মানুষ একইভাবে ভালোবাসেন এই ধারাবাহিকটি।

তবে সম্প্রতি ধারাবাহিক এসেছে নতুন চমক। মা হচ্ছে জগদ্ধাত্রী। কিন্তু সেই সুসংবাদের সঙ্গেই জগদ্ধাত্রী এবং স্বয়ম্ভুর জীবনে নেমে আসে বিপত্তি। একের পর এক ঝড় আঁচড়ে পড়তে শুরু করে জগদ্ধাত্রী এবং স্বয়ম্ভুর জীবনে। প্রথমে হঠাৎই জগদ্ধাত্রী এবং স্বয়ম্ভুর জীবনে আগমন ঘটে উত্তীয়র। তারপর চক্রান্ত করে অফিসের শেয়ার থেকে জগদ্ধাত্রী এবং স্বয়ম্ভুকে সরিয়ে দেওয়া, মুখার্জী বাড়ি থেকে বের করে দেওয়া সবটাই সহ্য করতে বাধ্য হচ্ছে জগদ্ধাত্রী।

জগদ্ধাত্রী আজকের পর্ব ১৯ মে (Jagaddhatri Today Episode 19 May)

ইতিমধ্যেই ধারাবাহিকে দেখা যাচ্ছে জগদ্ধাত্রী আর স্বয়ম্ভু বাড়িতে ফিরতেই কালবোস মামা জানান তাদের সঙ্গে দেখা করার জন্য বিশেষ অতিথি এসেছে। কথাটা শুনে খুব চমকে যায় জগদ্ধাত্রী। এরপরই ভিতরে ঢুকে সে দেখে তার সঙ্গে দেখা করতে এসেছেন বৈদেহী মুখার্জী এবং শকুন্তলা। জগদ্ধাত্রীকে দেখে শকুন্তলা বলেন তাদের কি এতই অর্থাভাব পড়েছে যে তারা একটা ভাড়া বাড়িও নিতে পারল না? এরকম একটা বাড়িতে থাকতে হচ্ছে? যদিও শকুন্তলার কথায় একেবারেই কর্ণপাত করেনি জগদ্ধাত্রী। এরপর বৈদেহী বলেন মুখার্জী বাড়িতে সবাই খুব খুশি। সবাই আনন্দ করছে। জগদ্ধাত্রীকে কেউ চায় না।

বৈদেহী এবং শকুন্তলাকে যোগ্য জবাব দিল জগদ্ধাত্রী

তখন জগদ্ধাত্রী উত্তরে বলে তার যদি ওই বাড়িতে অধিকার থাকে সে তাহলে নিশ্চয়ই ফিরে যাবে। তখন বৈদেহী বলেন তিনি জগদ্ধাত্রীর নাম হাসপাতাল থেকে কাটিয়ে দিয়েছেন। জগদ্ধাত্রীর সন্তান যখন মুখার্জী বাড়ির কেউ নয়, তাহলে সে কেন মুখার্জী বাড়ির সমস্ত সুযোগ সুবিধা পাবে? এর থেকে ভালো জগদ্ধাত্রী যেন তার সন্তানকে কোন সরকারি হাসপাতালে জন্ম দেয়। সেই কথা শুনেই কেঁদে ফেলে জগদ্ধাত্রী। কিন্তু স্বয়ম্ভু তখন বলে সে তার সন্তানকে নিজের টাকাতেই এই পৃথিবীতে আনবে। তখন জগদ্ধাত্রীও বলে কৌশিকী মুখার্জীর মতো একজন মানুষ যে কিভাবে মুখার্জী বাড়িতে জন্মালো সেইটাই ভাবা যায়না। সেটা শুনেই রেগে বেরিয়ে যায় শকুন্তলা আর বৈদেহী।

এরপর জগদ্ধাত্রীর সঙ্গে কথা বলে ডিপার্টমেন্টে চলে যায় স্বয়ম্ভু। স্বয়ম্ভুর চলে যাওয়ার পর জগদ্ধাত্রীকে ফোন করে সাঁধুদা। তারপরই বেরিয়ে যায় জগদ্ধাত্রী। ওদিকে ট্রাফিক সিগন্যালে থাকা বাচ্চাদের পরিবার সহ নিমন্ত্রণ করে আসে কাঁকন এত ছোট বয়সে কাঁকনের এরকম চিন্তাধারা দেখে অবাক হয়ে যায় মেনন। এদিকে জল কেনার জন্য রাস্তায় গাড়ি দাঁড় করায় উৎসব এবং মেহেন্দি। তখনই একজন অপরাধীকে মারতে গুলি চালায় জগদ্ধাত্রী। কিন্তু উৎসব এবং মেহেন্দি ভেবে বসে জগদ্ধাত্রী উৎসবকে মারার চেষ্টা করেছে। এই নিয়েই বেঁধে যায় গোলযোগ। তাহলে কি এবার কোন বড় ক্ষতি হবে মুখার্জী বাড়ির? কাকে মারতে আসল জগদ্ধাত্রী? প্রশ্নের উত্তর মিলবে আসন্ন পর্বে।

Ruhi Roy

রুহি রায়, গণ মাধ্যম নিয়ে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর পাশ। সাংবাদিকতার প্রতি টানে এই পেশায় আসা। বিনোদন ক্ষেত্রে লেখায় বিশেষ আগ্রহী। আমার লেখা আরও পড়তে এখানে ক্লিক করুন।