Bangla SerialEntertainment

অবশেষে সব কষ্টের অবসান! লাইফ সাপোর্টে দীর্ঘ লড়াই, প্রয়াত মোনালি ঠাকুরের মা

ছিঁড়ে গেল শেষ সুতো। ঘটল না কোন মিরাকেল। মা হারা হয়ে পড়লেন শক্তি ঠাকুরের দুই কন্যা। মাথায় রইল না কোন অভিভাবকের ছায়া। বেশ কিছুদিন আগেই সোশ্যাল মিডিয়ায় মায়ের শারীরিক পরিস্থিতির কথা তুলে ধরেছিলেন সঙ্গীতশিল্পী মোনালি ঠাকুর। জানিয়েছিলেন লাইফ সাপোর্টে রয়েছে তার মা। পোস্টটি শেয়ার করার ২৪ ঘণ্টা যেতে না যেতেই সবশেষ। জীবনাবসান ঘটল জনপ্রিয় কৌতুক অভিনেতা এবং সঙ্গীতশিল্পী শক্তি ঠাকুরের গৃহিণীর।

মাকে উদ্দেশ্যে করে কি পোস্ট করেছিলেন মোনালি ঠাকুর?

২০২০ সালের বাবার প্রয়াণের পর মাকে ঘিরেই নিজের জীবন কাটাচ্ছিলেন শক্তি ঠাকুরের দুই কন্যা মোনালি ঠাকুর এবং মেহুলি গোস্বামী ঠাকুর। শারীরিক অসুস্থতার কারণে বৃহস্পতিবার হাসপাতালে ভর্তি করা হয় গায়িকার মাকে। সোশ্যাল মিডিয়ায় মায়ের সঙ্গে মেয়েবেলার একটি ছবি শেয়ার করে সঙ্গীতশিল্পী জানিয়েছিলেন “কিভাবে সামলাবো এই পরিস্থিতি মা? কিভাবে এই শূন্যতা, এই যন্ত্রণা দূর হবে?” মনে হয় মা ক্লান্ত কিংবা নয়। কিন্তু এটাই সময়। আর আমাকে একটা কঠিন সিদ্ধান্ত নিতে হবে। মায়ের লাইফ সাপোর্ট সরিয়ে দেওয়ার।” সোশ্যাল মিডিয়ায় বৃহস্পতিবার নিজের যন্ত্রণার কথা স্টোরির মাধ্যমে শেয়ার করেছিলেন মোনালি ঠাকুর।

হাসপাতালে বিছানায় শুয়ে মা আর তার হাতটা শক্ত করে ধরে রেখেছেন মেয়ে মোনালি। তিনি আরও লিখেছিলেন “এই কঠিন পরিস্থিতিতে কিভাবে লড়তে হয়, তা কেন শেখাওনি তুমি… অসহায় লাগছে, কি করবো বুঝতে পারছি না। মা তুমি শান্তিতে থাকো। কিন্তু তোমাকে ছাড়া আমার জীবনটা কেমন করে চলবে… কোথায় রয়ে গেলাম মা আমি… এবার কি করব… আমার মা… আমার শিকড়… আমার সব।” জাতীয় পুরস্কার প্রাপ্ত সংগীতশিল্পীর লেখা পড়ে চোখ ভিজেছে নেটিজেনদের।

কি হয়েছিল সঙ্গীতশিল্পী মোনালি ঠাকুরের মায়ের?

কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন মোনালি ঠাকুরের মা। কাজ করছিল না দুটো কিডনি, চলছিল ডায়ালাসিস। অক্সিজেন লেভেলও নেমে দাঁড়িয়েছিল ৫৯ এর নিচে। তিন দিন ধরে লাইফ সাপোর্টে ছিলেন তিনি। ডাক্তাররাও জানিয়ে দিয়েছিলেন আর আশা নেই। গায়িকার ডাকে সাড়া দেননি ঈশ্বরও। শত চেষ্টা করেও বাঁচাতে পারলেন মা তার সবচেয়ে কাছের মানুষকে।

মায়ের মৃত্যুর সংবাদ সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার করলেন মোনালি ঠাকুরের দিদি মেহুলি গোস্বামী ঠাকুর

“শেকল ছিঁড়ে গেল… অবশেষে কষ্টের অবসান….। দুপুর ২টো বেজে ১০ মিনিটে মা স্থির হয়ে গেল।” মা হারানোর একরাশ যন্ত্রণা বুকে চেপে রেখে প্রয়াণের সংবাদ সামাজিক মাধ্যমে একটি পোস্ট করে শেয়ার করলেন মোনালি ঠাকুরের দিদি মেহুলি গোস্বামী ঠাকুর। পোস্টটি পড়েই শতাহত সঙ্গীতশিল্পী মোনালি ঠাকুরের অনুরাগীরা। হাসপাতাল থেকে সুস্থ হয়ে মেয়েদের কাছে ফিরে আসলেন না শক্তি ঠাকুরের স্ত্রী। শুক্রবার সমস্ত যন্ত্রণা থেকে পেয়ে গেলেন মুক্তি। তারাদের দেশে পাড়ি দিলেন শিল্পীর মা।

Ruhi Roy

রুহি রায়, গণ মাধ্যম নিয়ে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর পাশ। সাংবাদিকতার প্রতি টানে এই পেশায় আসা। বিনোদন ক্ষেত্রে লেখায় বিশেষ আগ্রহী। আমার লেখা আরও পড়তে এখানে ক্লিক করুন।