Bangla SerialEntertainment

একেই বলে প্রকৃত ভালোবাসা! লড়াই করে স্বামীর প্রাণ ফিরিয়ে আনল পুতুল! কার কাছে কই মনের কথায় দারুণ চমক

Kar Kache Koi Moner Kotha Today Episode: জি বাংলার (Zee Bangla) যে সমস্ত ধারাবাহিকগুলোর দর্শকদের মধ্যে চর্চিত হয়েছে তাদের মধ্যে অন্যতম অর্গানিক স্টুডিওর কার কাছে কই মনের কথা (Kar Kache Koi Moner Kotha)। শুরুর থেকেই ধারাবাহিকটির কাহিনী নজর কেড়েছে দর্শকদের। মেয়ের জীবনের ওঠা পড়া, নানা লড়াইয়ের কাহিনী নিয়ে তৈরি এই ধারাবাহিকটি পর্দায় বেশ পছন্দ করেছেন বাঙালি গৃহিণীরা। তবে এখনও টিআরপি তালিকায় স্পট দখল করতে পারেনি ধারাবাহিকটি।

তবে বর্তমানে পুতুলের লড়াই নিয়ে জমে উঠেছে ধারাবাহিকের কাহিনী। তীর্থকে সুস্থ করার জন্য পুতুলের আপ্রাণ চেষ্টা। গান গেয়ে গেয়ে পথে ঘাটে রোজগার করা সবটাই করেছে পুতুল। জামাইয়ের বাঁচানোর জন্য মেয়েকে এইভাবে লড়াই করতে দেখে নিজেকে আর সামলে রাখতে পারেননি মধুবালা দেবীও। আর পথ খুঁজে না পেয়ে বাড়ি বন্দক দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন মধুবালা দেবী। শিমুলও ঠিক করে নেয় সে তার গয়না বন্দক দেবে।

কার কাছে কই মনের কথা আজকের পর্ব ৬ জুন (Kar Kache Koi Moner Kotha Today Episode 6 June)

ইতিমধ্যেই ধারাবাহিকে দেখা গেছে মধুবালা দেবীর সঙ্গে বাড়ি বন্দক দেওয়ার কথা বলে সুচরিতা, বিপশাদের সঙ্গে কথা বলতে চলে যায় শিমুল। সেখানে যেতেই শিমুলের হাতে কিছু টাকা ধরিয়ে দেয় শীর্ষা। এরপরই সুচরিতা শিমুলের হাতে ধরিয়ে দেয় ১১ লাখ টাকার চেক। যেটা দেখেই অবাক হয়ে যায় শিমুল। সে বলে এতগুলো টাকা সে কিভাবে শোধ দেবে? তখন সুচরিতা বলে এইসবটা সঞ্জন তাকে দিয়েছে। সে পরে আসতে আসতে ফেরত দিতে পারবে। কিন্তু এখন তীর্থর সুস্থ হয়ে ওঠা বেশি জরুরি।

সুচরিতা এও জানায় সঞ্জয় তাকে বিয়ে করতে চেয়েছে কিন্তু তার মেয়ে রাজি হচ্ছে না। এরপর সুচরিতা, বিপাশার সঙ্গে কথা বলে শিমুল চলে যায় বাড়িতে। শিমুলের আসতে দেরি হয়েছে দেখে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করে মধুবালা দেবী। তখনই শিমুল বলে সে ১১ লাখ টাকা নিয়ে এসেছে। এটা শুনেই অবাক হয়ে যায় সবাই। মধুবালা দেবী জিজ্ঞাসা করেন এত টাকা শিমুল কথায় পেল। তখন প্রতীক্ষা বলে শিমুল নিশ্চয়ই এই টাকাটা অনুশ্চিতভাবে রোজগার করেছে। সেটা শুনেই রেগে যায় পুতুল। শিমুল তাদের জানায় সঞ্জয়ের ব্যাপারে।

সুস্থ হয়ে পুতুলকে কি বললেন তীর্থ?

পরেরদিন পরাগ জানায় সবাইকে তীর্থ আগেই থেকে অনেকটাই সুস্থ হয়েছে। সেই কথা শুনে তীর্থর সঙ্গে দেখা করতে চলে যায় পুতুল। পুতুলকে দেখে খুব খুশি হয় তীর্থ। তীর্থ জিজ্ঞাসা করে পুতুল কেমন আছে? তখন পুতুল তাকে জানায় সে সুস্থ হয়ে গেলে পুতুলও সুস্থ ভালো থাকবে। পুতুল তাকে এও জানায় সে গান গেয়ে ১ লাখ টাকা রোজগার করছে। যেটা শুনেই খুব খুশি হয় তীর্থ। তবে এই এবার সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরবে তীর্থ, নাকি ঘটবে বড় কোন ঘটনা, আপনাদের কি মনে হয়?

Ruhi Roy

রুহি রায়, গণ মাধ্যম নিয়ে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর পাশ। সাংবাদিকতার প্রতি টানে এই পেশায় আসা। বিনোদন ক্ষেত্রে লেখায় বিশেষ আগ্রহী। আমার লেখা আরও পড়তে এখানে ক্লিক করুন।