Bangla SerialEntertainment

ম’হাবি’পদে’র মুখে শিমুল! গু’ন্ডা’দের হাত থেকে স্ত্রীকে র’ক্ষা করল পরাগ! চ’ক্রান্ত’কারীর মুখ দেখলে চম’কে উঠবেন আপনিও!

Kar Kache Koi Moner Kotha New Promo: জি বাংলার (Zee Bangla) জনপ্রিয় ধারাবাহিক কার কাছে কই মনের কথা (Kar Kache Koi Moner Kotha)। লীনা গঙ্গোপাধ্যায়ের অর্গানিক স্টুডিও প্রযোজিত এই ধারাবাহিকটি মানুষের মনে নিজের জায়গায় করে নিলেও প্রতিপক্ষ ধারাবাহিক গীতা LLBর কাছে সর্বদাই পরা’স্ত হয়েছে শিমুল। সেই কারণে গত সপ্তাহ থেকে পরিবর্তন করা হয়েছে ধারাবাহিকের সময়। বর্তমানে সন্ধ্যে সাড়ে ৬টার পরিবর্তে ধারাবাহিকটি সম্প্রচারিত হতে চলেছে রাত সাড়ে ৯টায়। জানা গেছে অনুরাগের ছোঁয়াকে এবার প’রা’স্ত করতে না পারলেই বিদায় নেবে শিমুল।

shimul madhubala

সম্প্রতি যদিও ধারাবাহিকে এসেছে একাধিক চমক। সুমতি হয়েছে চন্দনের। শিমুলকে ছে’ড়ে চলে যাওয়ার সিদ্ধা’ন্ত নিয়েছে পরাগ। শিমুলের জীবনে এসেছে নতুন নায়ক। সব মিলিয়ে একেবারে জমে উঠেছে ধারাবাহিকের কাহিনী। শিমুলের চাকরিতে জয়েন করার পরই নিজের সমস্ত সম্প’ত্তি শিমুলের নামে লিখে নিরু’দ্দেশ হয়ে যায় পরাগ। এই শা’রীরি’ক অবস্থায় পরাগ কোথায় গেছে? এই চি’ন্তা’তেই মরিয়া হয়ে ওঠে শিমুল।

মহা’বিপ’দের মুখোমুখি শিমুল (Shimul is in denger):

ইতিমধ্যেই থা’নায় গিয়ে পরাগকে খুঁজে বের করার জন্য পুলি’শের কাছে আর্জি জানায় শিমুল। তারা শিমুলকে পরি’ষ্কার জানিয়ে দিয়েছেন এই ধরনের কেসে ব্যক্তিকে খুঁজে পাওয়ার সম্ভবনা কম। কিন্তু তারা যথাসাধ্য চেষ্টা করবেন। সবটা শুনে খুব ভে’ঙে পড়ে শিমুল। তবুও সে সিদ্ধান্ত নেয় সে কিছুতেই হা’ল ছাড়বে না। পরাগকে যে করেই হোক খুঁজে বের করবে সে। আর পরাগের দিয়ে যাওয়া সমস্ত দায়িত্বও অক্ষরে অক্ষরে পালন করবে শিমুল। তবে এবার ধারাবাহিকে আসছে নতুন মোড়।

মহা বিপ’দের সম্মুখীন শিমুল। স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার পথে একটি রাস্তায় মধুবালা দেবীকে ফোন করে তার সঙ্গে কথা বলতে বলতে বাড়ি দিকে যেতে থাকে শিমুল। তখন শিমুল মধুবালা দেবীকে জানিয়ে দেয় সে বাড়িতে ফিরছে কিন্তু তখনই পিছনের থেকে কিছু গু’ন্ডারা আটক করে শিমুলকে। শিমুল সাহায্যের জন্য চিৎকার করার চেষ্টা করতে থাকে। তখনই নতুন অফিসারকে নিয়ে শিমুলকে বাঁচা’তে চলে আসে পরাগ। আর পরাগকে দেখে পরাগের কাছে ছুটে গিয়ে তাকে জড়ি’য়ে ধরে শিমুল।

আরো পড়ুন: ‘মিঠাই পরবর্তী নেগে’টিভ করব না বলে এত ‘না’ বলেছি, আর আমার কাছে কাজ আসছে না’ অকপট তন্বী!

পুলিশ অফিসার গ্রেফ’তার করে সেই গু’ন্ডা’দের। পরাগ অফিসারকে বলে গু’ন্ডাটির মুখ খুলে দেখতে কে তাদের বিরুদ্ধে এত বড় চক্রা’ন্ত করছে। পুলিশ অফিসার লোকটির মুখ খুলতেই চমকে যায় পরাগ আর শিমুল। তবে কি পরাগ আর শিমুলের জীবনে ফিরে এলো কোন পুরোনো শ’ত্রু? নাকি এবার শিমুলের শ’ত্রু তার নিজের লোক? কে ক্ষতি করতে চাইছে শিমুলের? প্রতীক্ষা, পলাশ? নাকি অন্য কেউ? আপনাদের কি মনে হয়, কে আসে এইসব কিছুর পিছনে?

Ruhi Roy

রুহি রায়, গণ মাধ্যম নিয়ে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর পাশ। সাংবাদিকতার প্রতি টানে এই পেশায় আসা। বিনোদন ক্ষেত্রে লেখায় বিশেষ আগ্রহী। আমার লেখা আরও পড়তে এখানে ক্লিক করুন।