Entertainment

হঠাৎ কেন অনির্বাণের ওপর রেগে গেল রাই এবং শৌর্য্য! ধারাবাহিকের আসন্ন পর্বে রয়েছে বিরাট চমক! জানালেন অভিনেতারা!

জি বাংলার (Zee Bangla) জনপ্রিয় ধারাবাহিক মিঠিঝোরা (Mithijhora)। প্রতি সপ্তাহেই ধারাবাহিকের কাহিনীতে আসছে নতুন মোড়। ধারাবাহিকের নতুন টুইস্ট দারুণ উপভোগ করছেন বাংলার গৃহিণীরা। ধারাবাহিকে শুরু থেকে দেখা গেছে বাবার মৃ’ত্যুর পর সংসারের দায়িত্ব কাঁধে নেওয়ার জন্য নিজের ভালোবাসার বলিদান দেয় রাই। শৌর্য্য বিয়ে রাই দিয়ে দেয় মেজ বোন নীলুর সঙ্গে। তবে যে বোনের জন্য রাই নিজের ভালোবাসা ত্যাগ করল সেই বোনের চোখেরই আজ বিষ হয়ে দাঁড়িয়েছে রাই। নীলুর বারবার মনে হচ্ছে রাই শুধুই তার সংসার ভাঙার চেষ্টা করছে।

তবে রাইয়ের দিক থেকেও মুখ ফিরিয়ে নেননি ভগবান। ইতিমধ্যেই রাইয়ের জীবনে কড়া নেড়েছে অনির্বাণের ভালোবাসা। অনির্বাণের অফিসেই কাজ করতে যায় রাই। সেখানেই রাইয়ের ব্যবহার মুগ্ধ করে অনির্বাণকে। ধীরে ধীরে রাইকে ভালোবেসে ফেলে অনির্বাণ। তবে ভালোবাসার প্রকাশ ঘটার আগেই হয়ে যায় বিচ্ছেদ। ট্যাক্সের টাকা চুরির করার অভিযোগ আসে রাইয়ের ওপর। সেই কারণেই অনির্বাণের ওপর অভিমান করে চাকরি ছাড়ে রাই।

রাই এবং অনির্বাণকে একসঙ্গে দেখে নিল শৌর্য্য

যদিও রাইকে ফিরিয়ে আনতে রাইয়ের দ্বারস্থ হয়েছিল অনির্বাণ। কিন্তু লাভ হয়নি বিশেষ। রাইকে না পেয়ে শহর ছেড়ে চলে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় অনির্বাণ। তবে শর্মির থেকে সবটা শুনে অনির্বাণকে আটকাতে যায় রাই। তবে তারই মধ্যে ঘটে যায় আরেক ঘটনা। রাই এবং অনির্বাণকে একসঙ্গে কাছাকাছি দেখে নেয় শৌর্য্য। ধারাবাহিকের এই আসন্ন চমক নিয়ে কথা বলার জন্যই সম্প্রতি সাংবাদিকরা গেছিলেন মিঠিঝোরার সেটে।

অনির্বাণের ওপর রেগে গেল রাই শৌর্য্য, কেন রাগ করেছেন জানালেন আরাত্রিকা মাইতি

সাক্ষাৎকার শুরু হওয়ার পরই দেখা যায় অভিনেতা সুমনের ওপর রেগে গেছে আরাত্রিকা এবং সপ্তর্ষি। রাগের কারণ জানিয়ে অভিনেত্রী বলেছেন “নতুন ফ্ল্যাটে গৃহপ্রবেশ করল অথচ আমাদের খাওয়ালো না। আমায় খালি একটা সাক্ষাৎকারে ভিডিওর লিংক দিয়ে দিলো সেটাতেই আমি ফ্ল্যাট দেখে নিলাম। এই কয়েকজন তো সেটে থাকি তাও একদিনও মিষ্টি আনল না।” অভিনেতা সপ্তর্ষি রায়ও বলেছেন “তোমাকে তো তাও লিঙ্ক দিয়েছে দিয়েছে আমি তো ইউটিউবে স্ক্রল করতে করতে দেখলাম। মিষ্টি তো দূরের কথা।”অভিনেতা সুমন যদিও এই প্রসঙ্গে হেসে বলেছেন “কাল আনবো কারণ কাল ছুটি।”

ধারাবাহিকের নতুন চমক নিয়ে অভিনেতা সপ্তর্ষি জানান “একজনের জীবনে সুখ আসে আরেকজনের চলে যায়। আমার জীবনে নীলুর জন্য সমস্যাই সমস্যা। আসলে শৌর্য্য চেষ্টা করেছিল কিন্তু নীলু যা তাতে আর সংসার সম্ভব হচ্ছে না। আর এবার তো শৌর্য্য দেখছে নিজের দাদার সঙ্গে রাইকে। সেটাই যে একটা খারাপ প্রতিক্রিয়া আসবে সেটা বোঝাই যাচ্ছে।” অভিনেত্রী আরাত্রিকার কথায়, “এতদিন শুধু রাই কষ্ট সহ্য করেছে। এতদিন পর যাও সে একটু সুখের মুখ দেখল আবার শৌর্য্য কথা থেকে চলে এলো। জানি না কি হবে এবার।?” আপনাদের কি মনে হয় এবার কি রাই অনির্বাণকে আলাদা করার জন্য কোন বড় পদক্ষেপ নেবে শৌর্য্য?

Piya Chanda