Bangla SerialEntertainment

“আমি বিবাহিত!” সৌনকের কথা বাড়িতে বলতেই কান্নায় ভেঙে পড়ল রোহিণী! কোন গোপনে মন ভেসেছে’তে চমকে দেওয়া পর্ব আসছে!

Kon Gopone Mon Bheseche: জি বাংলার (Zee Bangla) জনপ্রিয় ধারাবাহিকে কোন গোপনে মন ভেসেছে (Kon Gopone Mon Bheseche)। শুরু থেকেই ধারাবাহিকটি মন জয় করেছিল দর্শকদের। তৃতীয় সপ্তাহ থেকেই একটানা রাত সাড়ে ৮টার স্লটে রাজত্ব করে যাচ্ছে ধারাবাহিকটি। ভাইদের হাত থেকে বাঁচতে সহজ সরল শ্যামলী কলকাতায় আসা। অনিকেতের হাত ধরে জোড়াবাড়িতে প্রবেশ। ভাগ্যচক্রে অনিকেতের সঙ্গে বিয়ে, তিস্তার আগমন। ধারাবাহিকের একের পর এক চমক দারুণ পছন্দ করেছেন দর্শকরা।

ধারাবাহিকে আসছে একের পর এক নতুন মোড়। একদিকে বিয়ে ভাঙতে চলেছে শ্যামলী আর অনিকেতের। যদিও সেই সিদ্ধান্ত রাজি নয় কেউই। অনিকেতকে ভালবেসে ফেলেছে শ্যামলী। আর অন্যদিকে ধীরে ধীরে শ্যামলীকেও মন দিয়ে ফেলেছে অনিকেত। তারপর মাঝে রোহিনীকে নিয়ে জোড়াবাড়িতে শুরু হয়েছে নতুন সমস্যা। বিয়ে হবে রোহিণীর। কথাটা শুনেই খুব কষ্ট পায় রোহিণী। রোহিণী ঘরে ফুল রাখতে গিয়ে শ্যামলী জানিতে পারে রোহিণী বিবাহিত।

কোন গোপনে মন ভেসেছে আজকের পর্ব ১৭ পর্ব (Kon Gopone Mon Bheseche Today Episode 17 May)

রোহিণীর বিষয়ে সবটা জানিতে পেরে অনিকেতের কাছে চলে যায় শ্যামলী। শ্যামলীর কথা শুনে চমকে যায় অনিকেত। অনিকেত ঠিক করে রোহিণীর সঙ্গে নিজে কথা বলবে। অনিকেত চলে যায় রোহিণীর ঘরে। রোহিতকে গিয়ে বিয়ের ব্যাপারে জিজ্ঞাসাবাদ করতে শুরু করে অনিকেত। কিন্তু অনিকেতের কথায় কোন উত্তর দিতে চায়না রোহিণী। সে জানিয়ে দেয় সে বিয়ে করতে চায়না ব্যস। কিন্তু তার পিছনে কোন বিশেষ কারণ নেই।

রোহিণীর মুখ থেকে সত্যিটা বের করল শ্যামলী

রোহিণীর ঘর থেকে বেরিয়ে এসে অনিকেত শ্যামলীকে জানায় শত চেষ্টা করেও রোহিণীর মুখ থেকে কোন কথাই জানতে পারেনি সে। কথা শুনেই শ্যামলী ঠিক করে এইভাবে রোহিনীকে কষ্ট পেতে দেওয়া যাবে না। যে করেই হোক এবার রোহিণীর মুখ থেকে কথা বের করতে হবে। রোহিণীর সঙ্গে এমন কিছু করতে হবে যে বাধ্য হয়ে চাপে পড়ে সে নিজেই সবটা বলে দেয়।

সৌনকের কথা জোড়াবাড়িতে বলেই কান্নায় ভেঙে পড়ল রোহিণী

পরেরদিন সকালে রোহিণী দেখে জোড়াবাড়িতে সবাই মিলে গয়না দেখতে বসেছেন। বিষয়টা দেখেই রেগে যায় রোহিণী। সে সবাইকে বলে সে কিছুতেই বিয়ে করবে না। তখনই চলে আসে অপরাজিতা। রোহিনীকে সত্যিটা বলার জন্য ক্রমাগত চাপ দিতে থাকে শ্যামলী আর অনিকেত। বাধ্য হয়েই রোহিণী জানায় “আমি বিবাহিত।” এরপর কলেজে সৌনকের সঙ্গে তার ভালোবাসা তারপর বিয়ে সবটাই জানায় সে পরিবারকে। রোহিণী এও জানায় যে অনিকেতের সঙ্গে যা হয়েছে সেটা দেখার পর আর সৌনকের সঙ্গে সংসার গড়ার স্বপ্ন দেখতে পারেনি সে। এই বলেই কান্নায় ভেঙে পড়ে রোহিণী। শ্যামলী রোহিনীকে কথা দেয় সে সৌনকে খুঁজে আনবে। তাহলে কি সৌনক আর রোহিণী ভালোবাসা পরিণতি পাবে এবার? আপনাদের কি মনে হয়?

Piya Chanda