Connect with us

    Tollywood

    Saurav Das: মহিষাসুর সেজে রসিকতার পাত্র নেট দুনিয়ায়! “আমাকে নিয়ে আলোচনা হচ্ছে মানেই আমি স্টার”, আত্মবিশ্বাসী “মন্টু পাইলট” সৌরভ দাস, ‘তাহলে রানু মন্ডল সুপারস্টার’, পাল্টা নেটিজেনদের

    Published

    on

    Sourav Ranu

    মহালয়ার আগে বাঙালি দর্শকদের কাছে একটা আলাদা উন্মাদনা থাকে। কারণ এই বিশেষ দিনে বাংলা টেলিভিশনের বিভিন্ন চ্যানেলে নায়ক নায়িকারা দুর্গা এবং অসুর রূপে দেখা দেন। বিভিন্ন জনপ্রিয় নায়ক নায়িকাদের এই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা দেওয়া হয় এবং দর্শকরা তাদের পরিচিত তারকাদের চেনা পরিচিত ছকের বাইরে দেখে আনন্দে লাফিয়ে ওঠে।

    এবারে মহালয়ার আর একটা দিন বাকি। কালকের দিনটাই গুরুত্বপূর্ণ দিন এবং তার থেকেই আনুষ্ঠানিকভাবে পুজো শুরু হয়ে যায় বাঙালিদের। তাই দুর্গা চরিত্র এবং অসুরের চরিত্র ফুটিয়ে তোলা প্রতিটি নায়ক নায়িকার কাছে একটা গুরুত্বপূর্ণ চ্যালেঞ্জ হয়ে ওঠে কারণ এর সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে বাঙালিদের আবেগ। পান থেকে চুন খসলেই সমালোচনার মুখে পড়তে হবে তারকাদের।

    তবে এবার মহালয়া আসার আগেই চরম সমালোচনার মুখে এই বাঙালি অভিনেতা। টলিউড একটা দীর্ঘ সময় ধরে রাজত্ব করে চলেছেন সৌরভ দাস। একাধিক গুরুত্বপূর্ণ সিনেমায় গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করলেও এখন অব্দি অভিনেতা সবথেকে আলোচিত চরিত্রটি হল মন্টু পাইলট।

    Prime Video: Montu Pilot (Bengali) - Season 1

    হ্যাঁ, এই ওয়েব সিরিজের মাধ্যমে তিনি ডিজিটাল পর্দায় একটা অন্যরকম জগৎ তৈরি করেছেন নিজের ভক্তদের জন্য। ডিজিটাল জুনিয়ার অনুরাগীরা সৌরভ দাসকে এখনো মন্টু পাইলট হিসেবেই চেনে এবং এবার সেই সৌরভ পর্দায় মহিষাসুর রূপে দেখা দিতে চলেছেন।

    এই ছবি সামনে আসতে না আসতেই প্রবল সমালোচনার শিকার অভিনেতা। আসলে অভিনেতাকে যে এই রূপে আগে কেউ দেখেনি সেটা যেমন একটা কারণ আরেকটা কারণ হলো যে এমনটা দর্শকরা আগেভাগে আশা করতে পারেনি। তবুও অন্যরকম কিছু দেখলে আমরা সকলেই চমকে উঠি বা অভিভূত হই। কিন্তু এই নায়কের ক্ষেত্রে জুটেছে সমালোচনা এবং প্রবল মাত্রায় কটাক্ষ।

    ‘তালপাতার সেপাই’, ‘দেখলেই হাসি পাচ্ছে’, ‘গাঁ’জাখোর’— মহিষাসুররূপী সৌরভ দাস প্রকাশ্যে আসা মাত্রই এই ধরনের কিছু শব্দ জানতে পেরেছেন তিনি নিজের সম্পর্কে। যদিও বহুদিন পর মহালয়ার মধ্য দিয়েই আবার ছোট পর্দায় ফিরতে চলেছেন সৌরভ। কারণ অনেক দিন হল তিনি ছোট পর্দা ছেড়ে মন দিয়েছেন সিরিজ আর সিনেমায়। তবে সেই তুলনায় স্বাভাবিকভাবেই আশা করা হয়েছিল হয়তো প্রশংসা পাবেন তিনি।

     

    View this post on Instagram

     

    A post shared by SVF Brands (@svfbrands)

    এখন অভিনেতা কী ভাবছেন সে সম্পর্কে জানতে এক সংবাদমাধ্যম যোগাযোগ করেছিল সৌরভ দাসের সঙ্গে। অভিনেতা বললেন তিনি এই বিষয়গুলো খুব উপভোগ করেন। তাই অনেকদিন হলো এইরকম শব্দ খুঁজে পাচ্ছিলেন না নিজের সম্পর্কে। আর এখন তো টিআরপির সময়। তাই অভিনেতাকে নিয়ে আলোচনা হচ্ছে মানেই তিনি জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন। আর পাশাপাশি অভিনেতাকে কেন এমন সাজানো হয়েছে তা স্বপক্ষে একটা যুক্তি দিয়েছেন সৌরভ। ওরা যে ভাবে পুরো বিষয়টা সাজিয়েছে, তা না দেখলে মানুষ বুঝবে না যে কেন তথাকথিত অসুরের মতো সাজানো হয়নি অভিনেতাকে। অনেকেই বলছেন যে ট্রোলিং করা মানে যদি স্টার হয় তাহলে তো উরফি জাভেদ, রাখি সাওয়ান্ত, রানু মন্ডল, স্যান্ডি সাহা সুপারস্টার।