জয়েন গ্রুপ

বাংলা সিরিয়াল

এই মুহূর্তে

Tollywood

কথা বলতে অক্ষম হয়ে পড়েছিলেন! মৃত্যুর আগে লিখে গিয়েছিলেন তিনটি শব্দ! তরুণ মজুমদারের সেই শব্দ পূরণ করবেন সৃজিত

বাংলা সিনেমা জগতের একজন বিখ্যাত পরিচালক হলেন তরুণ মজুমদার (Tarun Majumder)। উত্তমকুমার (Uttam Kumar) ও সুচিত্রা সেন (Suchitra Sen) অভিনীত চাওয়া পাওয়া (Chaowa Paowa) সিমেনাটি ছিল তরুণ মজুমদার পরিচালিত প্রথম ছবি। তিনি প্রথম জাতীয় পুরস্কার পেয়েছিলেন বিখ্যাত বাংলা সিনেমা কাঁচের স্বর্গ (Kancher Swarga) পরিচালনা করেন। পরবর্তী কালে, ভালবাসা ভালবাসা (Bhalabasa Bhalabasa), আলো (Aalo), চাঁদের বাড়ির (Chander Bari) মতো বিখ্যাত কিছু বাংলা সিনেমা পরিচালনা করেন। ২০২২ সালে হৃদ রোগে আক্রান্ত হয়ে পরলোক গমন করেন বিখ্যাত এই পরিচালক।

ভাবছেন তো হঠাৎ কেন লিখছি বিখ্যাত এই পরিচালকের কথা? না, আজ তাঁর মৃত্যুদিন বা জন্মদিন কোনওটাই নয়। তবুও আজ হঠাৎ করেই লিখছি তাঁর কথা। কারণ, গত ১৯ জানুয়ারি বিখ্যাত পরিচালক সৃজিত মুখার্জী মনে করিয়ে দিয়েছেন, পরিচালক তরুণ মজুমদারের শেষ সময়ে লেখা সেই তিনটি শব্দের কথা। মনে করিয়ে দিয়েছেন, মৃত্যুকে সামনে দেখেও, সিনেমা তৈরি করার কী অদম্য ইচ্ছেশক্তি ছিল ওই মানুষটার মধ্যে।

pic1656918771808

আচ্ছা আপনারা সৃজিত মুখার্জী পরিচালিত ‘উমা’ ছবিটি দেখেছিলেন? ওই ছবিতে একজন নাট্যব্যক্তিত্ব ছিলেন যিনি, মনোজ মিত্র অর্থাৎ নন্দ কে বলেছিলেন ‘লোকজন দেখুক আর না দেখুক আমাদের গল্প বলে যেতে হবে’। আর অন্যদিকে, মৃত্যুর ঠিক চার দিন আগে এরকমই কিছু একটা সাদা কাগজে লিখে রেখে গিয়েছিলেন পরিচালক তরুণ মজুমদার। মৃত্যুর আগের সময় তাঁর কথা বলার শক্তি হারিয়ে ফেলেছিলেন তিনি। তাঁর গলায় সেই সময় ঢোকানো ছিল রাইস টিউব।

আরও পড়ুনঃ দুঃসংবাদ! বন্ধ হয়ে গেল ‘মিঠিঝোড়া’ আর ‘মিলি’র সম্প্রচার! কেন হঠাৎ এই সিদ্ধান্ত নিল জি বাংলা?

তখন তিনি কাগজ-পেনসিল চেয়ে, হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে কাঁপা- কাঁপা হাতে লিখেছিলেন, “ছবি কিন্তু হবে।”। মৃত্যুর আগে তাঁর লেখা শেষ ইচ্ছা ছিল এটি। এই লেখার ঠিক চার দিন পরেই মারা যান বিখ্যাত পরিচালক তরুণ মজুমদার। তাঁর এই লেখার ছবি নিজের সোশ্যাল মিডিয়াতে পোস্ট করে সৃজিত লিখেন, ‘কিংবদন্তি পরিচালক তরুণ মজুমদারের মৃত্যুর চারদিন আগে কিছু লিখে গিয়েছিলেন। এর কারণ তিনি কথা বলতে পারছিলেন না। তাতে লেখা ছিল ‘ছবি কিন্তু হবে।’ এটি হয়তো তাঁর অসমাপ্ত ছবি, যার প্রস্তুতি তিনি শুরু করে দিয়েছিলেন। এই তিনটে শব্দ আমার মতো সিনেমা বানিয়েদের আজীবন অনুপ্রাণিত করে যাবে।’

Pou Chakraborty