জয়েন গ্রুপ

বাংলা সিরিয়াল

এই মুহূর্তে

প্রথম পাতা

বাংলা সিরিয়াল

টলিউড

বলিউড

হলিউড

রেসিপি

লাইফস্টাইল

অফবিট

ভাইরাল

Bangla Serial

ইচ্ছে পুতুলে উত্তেজনাপূর্ণ পর্ব! দীর্ঘ অপেক্ষার প্রহর শেষে সব বাঁধা পেড়িয়ে মধুচন্দ্রিমায় মেঘ-নীল!

মেঘ আর ময়ূরী, এই দুই বোনের গল্প নিয়ে শুরু হয়েছিল জি বাংলার ধারাবাহিক ইচ্ছে পুতুল।(Icche Putul) প্রথমে ময়ূরীর সঙ্গে বিয়ে হওয়ার কথা হয়েছিল সৌরনীলের। কিন্তু পরবর্তীকালে,বিভিন্ন কারণের জেরে মেঘের সঙ্গে বিয়ে হয়ে যায় সৌরনীলের। বিয়ের পর থেকেই নানা রকম ভাবে, মেঘকে অপদস্থ করার চেষ্টা করেছে ময়ূরী। সঙ্গে নীলকেও বারংবার দেখা গিয়েছে নিজের স্ত্রীকে ভুল বুঝে অপমান করতে। যা দেখতে দেখতে একেবারেই বিরক্ত হয়ে উঠেছিলেন দর্শকরা।

 

আরো পড়ুন: পর্ণার ওপর নজরদারী করতে ছদ্মবেশে সৃজন!’মে’রু’দ’ণ্ড’হী’ন পুরুষ!’ সন্দেহবাতিক সৃজনকে কটাক্ষ নেটিজেনদের

 

বর্তমানে এই ধারাবাহিকের পর্বে দেখানো হচ্ছিল মেঘ ও নীলের বিচ্ছেদ প্রক্রিয়া। বিচ্ছেদদের জন্য মেঘ ও নীল তাদের পরিবার নিয়ে কোর্টে উপস্থিত হওয়ার পর, নীলের বোন গিনি তাকে আরেকবার এই ব্যাপারে ভেবে দেখতে বললে নীল জানিয়ে দেয় যে সে আর কোনও ভাবেই মেঘকে বিরক্ত করতে চায় না।

অন্যদিকে, মেঘকে তার মা আরেকবার ভেবে দেখতে বললে মেঘ তা চুপ করে শুনে যায়। এরপর ডাক আসে বিচারপতির কাছে যাওয়ার। সেখানে গিয়ে বিচারপতি বিচ্ছেদের কারণ জিজ্ঞাসা করলে, নীল প্রত্যেকটি দোষ তার নিজের ঘাড়ে চাপিয়ে নেয়। এবং সাফ জানিয়ে দেয় সে আর মেঘকে বিরক্ত করতে চায় না।

 

 

আবার, মেঘও মনে মনে চায় না তাদের বিচ্ছেদটা হোক। তাদের কথাবার্তা ও ভঙ্গিমা দেখে বিচারপতি সিদ্ধান্ত নেন তাদের আরও একটি সুযোগ দেওয়ার। তার রায় অনুযায়ী, নীল ও মেঘকে ছয় মাস একসঙ্গে থাকতে হবে। এছাড়াও বিচারপতি পরামর্শ দেয় তাদের একসঙ্গে কোথাও ঘুরতে যাওয়ার। আর সেই মতোই মেঘ ও নীল সিদ্ধান্ত নেয় একসঙ্গে থাকার। তাই হয়তো পরবর্তী পর্বগুলোতে পূরণ হতে চলেছে দর্শকদের মনস্কামনা। মধুচন্দ্রিমায় যেতে চলেছে ‘মেঘনীল’।

Rimi Datta

রিমি দত্ত কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর। কপি রাইটার হিসেবে সাংবাদিকতা পেশায় চার বছরের অভিজ্ঞতা।