জয়েন গ্রুপ

বাংলা সিরিয়াল

এই মুহূর্তে

Bangla Serial

কেউ আছে নাকি সিঙ্গেল? আমতা আমতা করে জবাব দিলেন ‘দিদি’! তাহলে কি চুপি চুপি প্রেম করছেন রচনা?

তিনি বাংলার দিদি নম্বর ওয়ান। যেমন সু-অভিনেত্রী তেমনি সু-সঞ্চালিকা। রচনা ব্যানার্জির থেকে বেশি জনপ্রিয় সঞ্চালিকা বোধহয় এই মুহূর্তে বাংলায় আর কেউ নেই। তাকে ছাড়া দিদি নম্বর ওয়ান (Didi No 1) কল্পনাও করা দুষ্কর ভক্ত দর্শকদের পক্ষে। ৫০ ছুঁই ছুঁই হলেও বাংলা ইন্ডাস্ট্রিতে তিনি আজও দিদি নম্বর ওয়ান (Didi No 1)

বুঝতেই পারছেন কার কথা বলছি। হ্যাঁ, কথা বলছি অভিনেত্রী রচনা ব্যানার্জির। ১৯৯০ সালে ‘মিস কলকাতা’ খেতাব জেতা দিয়ে রচনা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সফল পথ চলা শুরু হয়। এরপর বজায় থেকেছে তার সাফল্যের ধারা। যদিও বয়ে চলা সময়ের সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে এখন আর সেই অর্থে সিনেমায় দেখতে পাওয়া না গেলেও এই মুহূর্তে বাংলা টেলিভিশন দুনিয়ায় সবথেকে পরিচিত এবং জনপ্রিয় মুখ তিনি। তাঁর সঞ্চালনায় সম্প্রচারিত শো দিদি নাম্বার ওয়ান তাকে সঞ্চালিকা হিসেবে এনে দিয়েছে পরিচিতি, খ্যাতি, বিপুল জনপ্রিয়তা ও সাফল্য। সাধারণ মানুষের ভিড়ে যেভাবে মিশে যেতে পারেন রচনা ব্যানার্জি তা দেখে মুগ্ধ বাঙালি দর্শক।

রচনা ব্যানার্জি কি বিবাহিত?

তবে এই মানুষটার ব্যক্তিগত জীবন কিন্তু ভীষণ‌ই ক্ষতবিক্ষত।অনেক সময়ই নিজের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে অকপট হতে দেখা গেছে রচনা ব্যানার্জিকে। এক সাক্ষাৎকারে অভিনেত্রী নিজেই জানিয়েছিলেন, তিনি বিবাহিত। না স্বামী প্রবাল বসুর সঙ্গে বিবাহ বিচ্ছেদ হয়নি তার। তবে স্বামীর সঙ্গে সম্পর্ক না ভাঙলেও তাঁদের সম্পর্ককে ‘হ্যাপিলি ম্যারেড’ বলা যায় না। কারণ তিনি আর তাঁর স্বামী আলাদা থাকেন। আসলে ছেলে প্রণীলের মুখের দিকে তাকিয়ে স্বামীর সঙ্গে বিবাহবিচ্ছেদ করেননি তিনি।

ছেলেকে নিয়ে আলাদা থাকেন রচনা।‌ তাঁর জীবনের বেশিরভাগটা জুড়েই ছেলে। তিনি যাননি তার ছেলেকে এই ট্যাগটা দিতে যে তার বাবা মা ডিভোর্সড। স্বামী প্রবাল বসুর সঙ্গে তার যে খারাপ সম্পর্ক এমনটাও নয়। দুজনে মিলেই সময় দেন ছেলেকে। তবে অভিনেত্রীর জীবনে কি অন্য কোন‌ও পুরুষ আছে? আসলেই সম্প্রতি শাশ্বত চট্টোপাধ্যায়ের একটি প্রশ্নের উত্তরে এমনই আমতা আমতা করে জবাব দিয়েছেন রচনা বন্দোপাধ্যায় যাতে এই গুঞ্জন আরও জোরালো হয়েছে।‌

রচনা ব্যানার্জির কি প্রেমিক আছে?

আসলে খুব তাড়াতাড়ি জি ফাইভ ওটিটি’তে আসতে চলেছে ‘আবার প্রলয়’ ৷ আর দিদি নাম্বার ওয়ান এর মঞ্চে সেই ওয়েব সিরিজের প্রমোশনে এসেছিলেন ক্রাইমব্রাঞ্চের স্পেশাল ইনসপেক্টর অনিমেষ দত্ত। আর সেখানেই তিনি রচনা বন্দ্যোপাধ্যায়কে জিজ্ঞাসা করেন তিনি সিঙ্গেল নাকি কেউ আছে? যদিও সে প্রশ্নের সঠিক উত্তর দেননি অভিনেত্রী। উল্লেখ্য , অনিমেষ দত্ত এবার পা রাখতে চলেছেন সুন্দরবন উপকূলে। আটকাতে চলেছেন নারী পাচার চক্রকে। সেই সঙ্গে এই ওয়েব সিরিজে রয়েছে জমজমাট সংলাপ। যেখানে অনিমেষ দত্তর মুখে শোনা যাচ্ছে “কবি বলেছিলেন, মেলাবেন তিনি মেলাবেন…আমি ‘ম’ বলি না ‘ক’ বলি কেলাবেন তিনি কেলাবেন…।”

Rimi Datta

রিমি দত্ত কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর। কপি রাইটার হিসেবে সাংবাদিকতা পেশায় চার বছরের অভিজ্ঞতা।