জয়েন গ্রুপ

বাংলা সিরিয়াল

এই মুহূর্তে

Bangla Serial

Phulki: ট্রোলের মুখে ‘ফুলকি’! রথে কাঠের বদলে টায়ারের চাকা! ঐতিহ্যকে আঘাত? খিল্লি করছে দর্শক

বর্তমানে ধারাবাহিকগুলো টিকে রয়েছে টিআরপির উপর। যার টিআরপি যত বেশি, সেই ধারাবাহিক তত বেশিদিন স্থায়ী থাকে। আর টিআরপিতে তলানিতে গেলেই ইতির খাতায় নাম লেখাতে হয় সেই ধারাবাহিককে। বলাই যায়, বর্তমানে ধারাবাহিকগুলোর মধ্যে কম্পিটিশনটা খুব কঠিন হয়ে পড়েছে। ১২ই জুন থেকে স্টার জলসায় শুরু হয়েছে ‘সন্ধ্যাতারা’। আর ঠিক সেদিন থেকেই জি বাংলায় শুরু হয়েছে ধারাবাহিক ‘ফুলকি’।

বলাই যায়, দুটোর মধ্যে কম্পিটিশনটা খুব কঠিন হবে। একদিক থেকে ‘সন্ধ্যাতারা’র হাতে রয়েছে স্টারের টিআরপি, অন্যদিকে ‘ফুলকি’র হাতে রয়েছে জি এর টিআরপি। দুটোর উপরই নির্ভর করছে কে কাকে টপে রাখবে। আর তাই ‘ফুলকি’র প্রথম পর্বেই ফাটাফাটি পর্ব দেওয়ার চেষ্টা করেছে পরিচালক। তবে সেই ট্যুইস্ট আনতে গিয়েই প্রথমদিনেই ট্রোলের মুখে পড়েছে ‘ফুলকি’।

যদিও ফুলকির প্রথম পর্বও বেশ কিছু দর্শকের ভালো লেগেছে। প্রথম পর্বেই ছিল বেশ কয়েকটি সাসপেন্স। রোহিতের অতীত কি? ফুলকি কি রোহিতের স্ত্রী!? নাকি অন্য কেও? সাসপেন্স রয়েছে অনেকটাই। অন্যদিকে প্রতিটি তারকার অভিনয় দর্শকদের লেগেছে ফাটাফাটি। অভিষেক দার অভিনয় নিয়ে কোনো কথা বলার প্রয়োজন নেই, এককথায় অনবদ্য। নেতাজি ফিরেছে এক আলাদাই রূপে।

নবাগতা দিভ্যানিকে দেখে মনে হচ্ছে না, এটা তার প্রথম মেগা। যেমন সুন্দর লিপসিং, তেমন সুন্দর এক্সপ্রেশন। একদিকে শান্ত, রাগী, অতীতের কিছু ঘটনায় মর্মাহত নায়ক, অপরদিকে চঞ্চল, খুশমেজাজী নায়িকা। দুই ভিন্ন মনের মানুষের প্রথম সাক্ষাৎ। গল্পের নায়িকার গায়ে রয়েছে অনেক শক্তি, বক্সিং-এ টক্কর দেয় ছেলেদের। যদিও নায়িকার রয়েছে হাঁপানির সমস্যা তবুও দু হাতে দুটো ভর্তি গ্যাস সিলেন্ডার বয়ে নিয়ে যেতে পারে ফুলকি। ফুল্কিতে এরপ অতি নাটকীয়তা অনেকের ভালো লাগেনি।

আবার এক নতুন ট্রোলের মুখে পড়ল ‘ফুলকি’। দেখা গেল রথের দিনে রথের চাকা কাঠের বদলে টায়ারের। এ রথ নাকি গাড়ি? এতদিন আমরা রথের চাকা কাঠের দেখে এসেছি। তবে ফুলকি’তে রথের চাকা টায়ারের দেখে দর্শক খিল্লি করছে। আবার সেই চাকা গিয়েছে গর্তে আটকে। এবার এক হাতেই ফুলকি এতো বড় রথকে উদ্ধার করবে। নেটিজেনদের ট্রোল বাদে বাকি দর্শকরা কিন্তু ভালোই উপভোগ করেছেন এই পর্বকে।

Rimi Datta

রিমি দত্ত কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর। কপি রাইটার হিসেবে সাংবাদিকতা পেশায় চার বছরের অভিজ্ঞতা।