Connect with us

    Bangla Serial

    প্রেস মিটে টান টান উত্তেজনা! ছদ্মবেশধারী রূপ ধরা পড়ল গিনির কাছে! কী হবে এবার? ইচ্ছে পুতুলে ধুন্ধুমার

    Published

    on

    icche putul

    অনিন্দ্যবাবু বারবার করে মধুমিতাকে সাবধান করে চলেছেন। জীবনটাই একটা যুদ্ধ। তাই বুদ্ধি করে না চললে কোনোদিন প্রতিকূলতা দূর হবে না। মধুমিতা বলে, “আমি সবই বুঝি অনিন্দ্য বাবু। আমি বুঝতে পারছি আপনি আমাকে এই কথাগুলো কেন বলছেন। আসলে ময়ূরীর নিজের ভুলগুলো নিয়ে অনুতাপ কোনোদিন হয়নি। সে বরাবরই চেয়ে এসেছে মেঘের ক্ষতি করতে। আর জীবনেও ময়ূরী বদমাইশি করা থামাবে না।”

    অন্যদিকে, গিনি আর মিনি অপেক্ষা করতে থাকে রূপের জন্য। কিন্তু রূপের দেখা নেই। গিনি তার বোনকে বলে, কাল রুপা আর ময়ূরীর নিজের কুকীর্তির কথা নিজের কানে শুনবে। রূপে তাই আজ এখানে আসতেই হবে। মিনিও ময়ূরীর উপর বিরক্তি নিয়ে বলতে থাকে কি করে নিজের বোন হয়ে এমনটা মেঘের সঙ্গে করছে ময়ূরী? আমরা কি এরকম কোনোদিনও করতে পারি? আর ওরা তো মায়ের পেটের বোন।

    এদিকে অনিন্দ্যবাবু প্রেস মিটে নিয়ে যেতে চায় মেঘকে। মেঘ ভাবে এমন কি জরুরী প্রেস মিট যে তাঁকে থাকতেই হবে? পরদিন মেঘ তৈরি হলে অনিন্দ্যবাবু বলেন,”আজ তুমি সব জানতে পারবে। তোমার সঙ্গে কারা অন্যায় করেছে।” ময়ূরীও এসে হাজির হয় সেখানে। সেও যেতে চায় মেঘের সঙ্গে। কিন্তু অনিন্দ্য আর মধুমিতার ব্যবহার দেখে অশনি আঁচ করে ময়ূরী। বুঝতে পারে নিশ্চই কোনো সর্বনাশ হতে চলেছে। তাই জন্যই বাড়ির সকলে এমন ব্যবহার করছে তার সঙ্গে।

    এদিকে নীল আর গিনি উপস্থিত হয়েছে যথাস্থানে। নীল গিনিকে জিজ্ঞেস করে রূপ কি আধেও আসবে? গিনি জানায়, ও আসবেই। ও আর অন্য কোথাও যাবেই না আজকে। এরমধ্যেই চলে এসেছেন রিপোর্টারা। পুলিশও চলে এসেছে। পন্ডিত’জির কাছে রিপোর্টারা এসে জিজ্ঞেস করে, আপনি জানেন আজকে আমাদের এখানে কেন ডাকা হয়েছে?

    আরও পড়ুনঃ সবার সামনে ধরা পড়ে গেলেন রাজনাথ মুখার্জি! তবে কি কৌশিকী মুখার্জির গুলি রহস্য সমাধান করে ফেলল জগদ্ধাত্রী?

    পন্ডিতজি মিডিয়াকে জানায়, মেঘের সঙ্গে যারা কুকীর্তি করেছিল তাঁদের পর্দা ফাঁস করতেই আজকে আপনাদের সকলকে এখানে ডাকা হয়েছে। অপরাধীরা উঠে আসবে। মেঘ ন্যায় বিচার পাবে। জিষ্ণু আর মেঘের কুকীর্তির খবর প্রকাশ্যে এসে যে ভাবমূর্তি নষ্ট হয়েছে, তা আজকে হয়ত বদলে যেতে পারে। এদিকে, প্রেস মিটে রূপ এসেছে। কিন্তু এক্কেবারে অন্যরূপে। ছদ্মবেশ নিয়েছে সে। মিনির চোখকে অবশ্য ফাঁকি দিতে পারেনি। মিনি গিনিকে বলে লোকটাকে বড় অস্বাভাবিক লাগছে। গিনি তখন রূপকে চিনতে পারে। কিন্তু তখনই কাউকে কিছু না জানানোর সিদ্ধান্ত নেয় গিনি আর মিনি। শুরুর মুখে এসে যায় প্রেস মিট। ভিডিও নিয়ে রেডি গিনি, মিনিরা। এবার কি সকলের সামনে পর্দা উঠবে ময়ূরী আর রূপের মুখ থেকে?