Bangla Serial

ক্রমশ কাছাকাছি আসছে শিমুল-পরাগ! প্রথম দিন স্বামীর আশীর্বাদ নিয়ে স্কুলে গেল শিমুল!

জি বাংলার (Zee Bangla) জনপ্রিয় ধারাবাহিক কার কাছে কই মনের কথায় (Kar Kache Koi Moner Kotha) এসেছে নতুন চমক। পলকের মধ্যেই বিপাশা আর শিমুল, দুজনের জীবনেই এসেছে আমূল পরিবর্তন। ইতিমধ্যেই ধারাবাহিকে আপনারা দেখেছেন বিপাশা চন্দনের নামে থানায় অভিযোগ করে এসেছে। তারপর বিপাশার সঙ্গে কথা বলতে চলে আসে বসুন্ধরা। নানা বিষয় নিয়ে সে কথা বলতে থাকে বিপাশার সঙ্গে। বসুন্ধরা মুখে এরকম কথা শুনে বিপাশা ভাবে “এইটুকু মেয়ে। ওর বাবা চলে গেলে কি হবে ওর।” যদিও পরক্ষনেই সেই ভাবনা মাথা থেকে ঝেড়ে ফেলে বিপাশা।

বিপাশা বসুন্ধরাকে বলে “তুমি এখন আমায় ভালো বলছ কিন্তু তোমার বাবাকে যখন পুলিশ নিয়ে যাবে আর তোমার মায়ের ঘর ভাঙবে তখন তুমি আমায় খুব ঘেন্না করবে।” তখন বসুন্ধরা বিপাশাকে প্রশ্ন করে “কেন তোমার ঘরটা তো সুন্দর আর ঠিকই আছে তাহলে মায়ের ঘর ভাঙবে কেন?” তখন বিপাশা বসুন্ধরাকে বলে “তুমি তো বেশ কথা বলতে পারো। আমি যদি রেগে যাই আর তোমায় বের করে দিই তাহলে।”

তখন বসুন্ধরা বলে “তুমি খুব ভালো। জানো আমার খেলতে ভালোলাগে আর পড়তেও ভালো লাগে কিন্তু মা এখন আর আমায় পড়তে বসায় না। তুমি আমায় পড়াবে?” তখন বিপাশা বসুন্ধরাকে একটা ছড়া বলতে বলে। বসুন্ধরাও খুব সুন্দর করে বিপাশাকে ছড়া শোনায়। আরও সুন্দর করে ছড়া বলা শেখান বিপাশা বসুন্ধরাকে। তারপরই বিপাশা মনে মনে ভাবে “না এইভাবে বসুন্ধরার মায়ায় জড়ালে হবে না। আমায় নিজের সিদ্ধান্তে অনড় থাকতে হবে।”

ওদিকে পরাগকে প্রণাম করার জন্য শিমুল চলে যায় তাদের ঘরে। পরাগ তখন শিমুলকে বলে শিমুলকে খুব সুন্দর দেখতে লাগছে। সবারই শিমুলের মর্মটা বুঝেছিল খালি সে ছাড়া। পরাগ বলে “মাঝে মাঝে ভাবি যা হয়েছে ভালোই হয়েছে যদি এক্সিডেন্টটা না হতো তাহলে হয়তো তোমার মর্মটা বুঝতে পারতাম না।” তখন শিমুল তাকে এইসব কথা চিন্তা করতে বারণ করে। শিমুল বলে আজ শুধু পরাগের জন্য সে চাকরি পেয়েছে। কিন্তু পরাগ তাকে বলে শিমুল চাকরিটা পেয়েছে কারণ সেটা তার অধিকার। সে একজন খুব ভালো শিক্ষিকা হবে।

আরো পড়ুন: আগাম জেনে নিন এই সপ্তাহের টিআরপি! এবার কী সেরার সেরা হবে জগদ্ধাত্রী? নাকি বাজিমাত করল অন্য কেউ? জেনে নিন

তখন শিমুল পরাগকে প্রণাম করতে বলে সে চাকরির টাকা দিয়ে পরাগকে আরও ভালো ডাক্তার দেখাবে। তারা আবার নতুন করে বাঁচবে, সংসার করবে। শিমুল পরাগের সঙ্গে কথা বলে বেরিয়ে যায় স্কুলে। সেখানে গিয়ে শিমুল প্রধান শিক্ষকে প্রণাম করে। তিনি শিমুলকে বলেন “আমি জানি তুমি খুব ভালো শিক্ষিকা হবে। এখানে অনেকে আছে তাই আমি তোমায় নাম ধরে ডাকব তবে তুমি আমার কাছে আমার মেয়ের মতোই।” তাহলে কি শিমুল পারবে একজন ভালো শিক্ষিকা হয়ে পরাগের পাশে দাঁড়াতে?

Ruhi Roy

রুহি রায়, গণ মাধ্যম নিয়ে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর পাশ। সাংবাদিকতার প্রতি টানে এই পেশায় আসা। বিনোদন ক্ষেত্রে লেখায় বিশেষ আগ্রহী।