Bangla SerialEntertainment

টালমাটাল পরিস্থিতিতে বর্ষার বৈবাহিক জীবন: অর্ণব সোহিনীর সম্পর্কের কথা জেনে গেল বর্ষা, নিম ফুলের আজকের চমক

Neem Phooler Madhu Today Episode: জি বাংলার (Zee Bangla) যে ধারাবাহিকগুলো শুরুর থেকেই দর্শকদের মাঝে সবচেয়ে বেশি চর্চায় রয়েছে তাদের মধ্যে অন্যতম নিম ফুলের মধু (Neem Phooler Madhu)। শুরুর থেকেই ধারাবাহিকটির কাহিনী মন জয় করে নিয়েছে দর্শকদের। পর্ণার কেরামতি, সৃজন পর্ণার রসায়ন, দত্ত পরিবারে নতুন নতুন কেলোর কীর্তি সবটাই পর্দায় দারুণ উপভোগ করেন ধারাবাহিক প্রেমী দর্শকরা।

তবে সম্প্রতি পুঁটির জন্ম এবং পর্ণার স্মৃতি হারিয়ে যাওয়ার পর একেবারে ৩৬০ ডিগ্রি ঘুরে গেছে ধারাবাহিকের কাহিনী। সুকুমার হালদারকে বিয়ে করে মন্ত্রী হওয়ার ফন্দি আটছে ঈশা আর দত্ত বাড়িতে বরবাদ করার জন্য ঈশার সঙ্গ দিচ্ছে মৌমিতা এবং অয়ন। ওদিকে দত্ত বাড়ির টাকা আত্মসাৎ করার জন্য এদের সঙ্গে হাত মিলিয়েছে সুইটি। তবে তার মাঝেই জানা গেছে ফের সাংবাদিকতার চাকরি পেয়ে গেছে পর্ণা। ঈশার কান্ড ফাঁস করার জন্য সংবাদ মাধ্যম থেকে এসে চাকরি দিয়ে গেছে পর্ণাকে।

নিম ফুলের মধু আজকের পর্ব ৯ জুন (Neem Phooler Madhu Today Episode 9 June)

ইতিমধ্যেই ধারাবাহিকে দেখা গেছে পর্ণা চাকরি পেয়েছে বলে ফিস্ট করার পরিকল্পনা করে দত্ত বাড়ির সকলে। চলে দেদার নাচ। আর এদিকে সকলকে খাওয়ার কথা বলার জন্য চলে আসে পর্ণা। সেই ফাঁকে মাংস খাওয়ার জন্য রান্না ঘরে চলে যায় সুইটি। কিন্তু সুইটিকে হাতে নাতে ধরে ফেলে মঙ্গলা। সুইটিকে সে বলে এইভাবে খাওয়ার ওপর নজর না দিতে। সেটা শুনেই রাগারাগি করে চলে যায় সুইটি।

তখন সৃজন বলে জেঠু কখনওই এইদিকে খেতে আসবে না। এটা শুনে পর্ণা বলে সে কথা বলবে। এই বলেই জেঠুর কাছে গিয়ে তাকে বারবার করে অনুরোধ করতে শুরু করে পর্ণা। পর্ণার কাছে হার মেনে অবশেষে একসঙ্গে খেতে রাজি হন জেঠু। সকলে মিলে আনন্দ করে শুরু করে খাওয়া দাওয়া। মঙ্গলা এসে জানায় আলাদা করে রাখা মাংসের বাটি পাওয়া যাচ্ছে না। এটা শুনেই সুইটির ঘরে চলে যায় পুঁটি। সুইটিকে খাটের নিচে মাংস খেতে দেখে সকলকে ডেকে নিয়ে আসে সে।

অর্ণবের সঙ্গে সোহিনীর সম্পর্কের কথা জেনে গেল বর্ষা

ওদিকে সোহিনী জন্য রান্না করতে শুরু করে বর্ষার। এরপরই অর্ণবের সঙ্গে অর্ণবের বাড়ি চলে আসে সোহিনী। যদিও দিদির আসাতে একেবারেই খুশি হয়নি বর্ষার ননদ। তবুও খুশি হওয়ার নাটক করতে থাকে সে। যদিও সোহিনীকে দেখে মুখের হাসি চওড়া হয়ে যায় নবনীতার। বর্ষাকে দেখে সোহিনী হাত মিলাতে গেলে, হাত জোর করে সোহিনীকে নমস্কার জানায় বর্ষা। সোহিনী বর্ষাকে জিজ্ঞাসা করে অর্ণবের মতো এত দুষ্টু একটা ছেলেকে সে কিভাবে সামলায়? পরিস্থিতি বেগতিক দেখে সোহিনীকে নিয়ে চলে যায় নবনীতা। যদিও সোহিনীর কথা শুনে খটকা লাগে বর্ষার। বর্ষার জীবনে নতুন কি ঝড় তুলবে সোহিনী? জানতে হবে দেখতে থাকুন নিম ফুলের মধু।

Ruhi Roy

রুহি রায়, গণ মাধ্যম নিয়ে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর পাশ। সাংবাদিকতার প্রতি টানে এই পেশায় আসা। বিনোদন ক্ষেত্রে লেখায় বিশেষ আগ্রহী। আমার লেখা আরও পড়তে এখানে ক্লিক করুন।