Food

জন্মদিন হোক বা বিবাহবার্ষিকী! বিশেষ দিনে সকলের জন্য বাড়িতেই বানিয়ে ফেলুন বিশেষ রেসিপি কোলাপুরী মটন, রইল রেসিপি

বিয়ে হোক বা জন্মদিন, বা হোক ছুটিরদিনের দুপুর বাড়িতে মটন না হলে খাওয়াটা ঠিক জমে না। ছোট থেকে বড় সকলেরই পছন্দের খাওয়ার মটন। শরীরের সমস্যাকে বুড়ো আঙুল দেখিয়েই সমস্ত অনুষ্ঠানে চলে মটন। সেটা ঝোল হোক, কিংবা হোক কষা খাওয়ারে যেন একটি আলাদাই মাত্রা এনে দেয় মটন। তবে ঝোল বা কষা তো খুবই প্রচলিত এবং সাধারণ। তাহলে কিভাবে করবে আপনার বিশেষ দিনটিকে আরও বিশেষ! তাই চলুন আজ বানিয়ে ফেলি মটনের একদম আলাদা একটা রেসিপি। যেটা খেতে হবে অসাধারণ একেবারে রেস্তোরার মতো অথচ বানানোও খুব সহজ। তাই আজকের স্পেশাল রেসিপি কোলাপুরি মটন। তবে তার আগে চলুন জেনে নেওয়া যাক কি কি দোষ বা গুণাগুণ আছে মটনে।

প্রথমেই বলে মটন সত্যিই রেডমিট তবে এক্ষেত্রে অনেকেই মনে করেন রেডমিট মানেই সেটা আমাদের কোলেস্টরল বাড়ায়। কিন্তু সেটা সত্যি নয়। মটনে হল ভিটামিন, প্রোটিন, খনিজের ভান্ডার। ভিটামিন বি ১২, বি ৩, বি ৬, জিঙ্ক, আয়রন, সেলেনিয়াম রয়েছে মটনে। এইসবই স্বাস্থ্যের পক্ষে উপকারী। তবে স্যাচুরেটেড ফ্যাট থাকলেই কিন্তু সেটা কোলেস্টরল বাড়ায়। যদিও ভেড়ার মাংসের থেকে খাসির মাংসে স্যাচুরেটেড ফ্যাট কম থাকে। এছাড়াও খাসির মাংস রক্তপ্লতা দুর করে। ত্বক উজ্জ্বল করে, হাড়, চুল, দাঁত ভালো রাখে। গর্ভবতী মহিলাদের জন্য খাসির মাংস উপকারী। তবে খেয়াল রাখবেন বাংলাটা যেন ফ্রেশ হয় অর্থাৎ ফ্রিজে রেখে কম খাওয়ার চেষ্টা করুন। আর হালকা মশলা দিয়ে খাওয়ার চেষ্টা করুন। তবে হাই কোলেস্টরল থাকলে রেডমিট হতে সাবধান। এবার চলুন দেখে নিই কি কি লাগছে কোলাপুরী মটন বানানোর জন্য।

উপকরণ:

পাঠার মাংস: ১ কেজি
টকদই: ১ কাপ
রসুন বাটা: ৩ টেবিল চামচ
পেঁয়াজ: ৫ টি
আদা বাটা: ১ টেবিল চামচ
গোলমরিচ গুঁড়া: ১ টেবিল চামচ
শুকনো লঙ্কা: ৫ টি
নারকেল কোরা: ৪ টেবিল চামচ
জিরে: ১ টেবিল
গোটা ধনে: ১ টেবিল চামচ
বড় এলাচ: ১ টি
দারচিনি: ২ টি
শুকনো লঙ্কা: ২ টি
স্টার অ্যানেস: ১ টি
এলাচ: ৩টি
তেজ পাতা: ১টি
গোটা গোলমরিচ: ১ চা চামচ
পোস্ত: ১ টেবিল চামচ
তিল: ১ টেবিল চামচ
হলুদ গুঁড়ো: আধ চা চামচ
টমেটো বাটা: ২ টেবিল চামচ
শুকনো লঙ্কা গুঁড়ো: ১ চা চামচ
ধনে পাতা কুচি: আধ কাপ
নুন ও চিনি: স্বাদ অনুযায়ী
বাদাম তেল: প্রয়োজন অনুযায়ী

প্রণালী:

প্রথমেই পাঠার মাংস ভালো করে ধুয়ে নিন। তারপর জল ঝরিয়ে তুলে রাখুন একটি পাত্রে। এবার মাংসটিতে নুন, টকদই, আদা বাটা, গোলমরিচ গুঁড়া, রসুন বাটা, লঙ্কার গুঁড়ো দিয়ে মাখিয়ে রাখুন। তারপর শুকনো তাওয়া নিয়ে তাতে শুকনো লঙ্কা, নারকেল কোরা, গোটা ধনে, দারচিনি, জিরে, স্টার অ্যানেস, বড় এলাচ, তিল, এলাচ, গোটা গোলমরিচ, পোস্ত সবগুলো ভালো করে ভেজে নিন। এবার এতে সামান্য জল দিয়ে মিক্সিতে ভালো করে বেঁটে নিন। এরপর কড়াইতে সামান্য তেল গরম করে শুকনো লঙ্কা ও তেজ পাতা ফোড়ন দিয়ে নিন। তারপর তেলের মধ্যে পেঁয়াজ কুচি দিয়ে নাড়াচাড়া করুন।

আরো পড়ুন: দোল স্পেশাল রেসিপি! বানিয়ে ফেলুন দোলের জন্য মুখে লেগে থাকা স্পেশাল ঠান্ডাই! রইল রেসিপি

এরপর পেঁয়াজের রঙ বাদামি হয়ে এলে আগে থেকে মাখিয়ে রাখা মাংস দিয়ে ভালো করে নাড়াচাড়া করুন। তারপর আগে থেকে বেঁটে রাখা মশলাগুলো দিয়ে ভালো করে মাংসটা কষিয়ে নিন। তারপর চাপা দিয়ে মাংস ভালো করে সেদ্ধ করে নিন। প্রয়োজন বুঝতে এতে সামান্য গরম জল দিতে পারেন। এবার স্বাদ অনুযায়ী পরিমান মতো নুন এবং চিনি দিয়ে কষাতে থাকুন আরও কিছুক্ষন। মাংস সেদ্ধ হয়ে এলে ধনে পাতা কুচি দিয়ে নামিয়ে নিন। এবার নৈশভোজে পরোটা বা রুটির সঙ্গে গরম গরম পরিবেশন করুন কোলাপুরী মটন। একেবারে জমে যাবে নৈশভোজ।

Ruhi Roy

রুহি রায়, গণ মাধ্যম নিয়ে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর পাশ। সাংবাদিকতার প্রতি টানে এই পেশায় আসা। বিনোদন ক্ষেত্রে লেখায় বিশেষ আগ্রহী।