Food

গরমে নাজেহাল, মধ্যাহ্ন ভোজে বানিয়ে নিন মা-ঠাকুমাদের সময়ের রেসিপি দুধ শুক্তো, রইল রেসিপি

প্রায় সমস্ত বাঙালি বাড়িতে গরমকাল মানেই শক্তো কিন্তু মাস্ট। সেই প্রাচীন যুগ থেকেই এই রেসিপিটি রাজত্ব করেছে প্রত্যেক বাঙালিদের হেঁসেলে। বৈষ্ণবসাহিত্য এবং মঙ্গলকাব্য যদিও সেইসময় শুক্তো বলতেই বোঝাত তেঁতো পদ। তবে দিনে দিনে বদলেছে শুক্তো রান্নার ধরন। পরিবর্তন এসেছেন স্বাদে। যদিও একাংশের মতে বেগুন, আলু, পেঁপে, উচ্ছে দিয়ে শুক্তো রান্না প্রথম শুরু করেছিলেন পর্তুগীজরা। আবার অনেকেই এটাও বলেন যে পর্তুগাল থেকে ভায়া গোয়া হয়ে এই পদটি সবশেষে এসেছে বাংলায়।

তবে এই পদটি দেশি হোক বা বিদেশি বাঙালিদের সমস্ত শুভ কাজেই কিন্তু সবচেয়ে শুভ পদ শুক্তো। তাহলে চলুন এই গরমে চটজলদি বানিয়ে ফেলা যাক এই ঐতিহাসিক যুগের সুস্বাদু রেসিপিটি। তবে শক্তো নানা মানুষ বানান নানাভাবে। তবে দুধ শুক্তো রাঁধতে পারলে তার মতো সুস্বাদু এবং দুর্দান্ত শুক্তোর রেসিপি আর নেই। তাহলে চলুন আর দেরি না করে জেনে নেওয়া যাক কিভাবে বানাবেন এই দুধ শক্তোর রেসিপিটি।

উপকরণ:

১টা আলু, আঙুলের মতো করে কেটে নেওয়া ১টা গাজর,২০০ মিলি লিটার দুধ, মাঝারি আকারের ডুম ডুম করে কেটে রাখা ১টা বেগুন, ৪টে সজনে ডাঁটা, ২টো উচ্ছে বা করলা, ১ টা রাঙা আলু, ১টা কাঁচালঙ্কা, ৮ গ্রাম আদা, ২/৪ রাঁধুনি, ১/৪ মৌরি, ১/৪ মেথি, ১ চামচ ঘি, সামান্য পরিমাণে পাঁচফোড়ন, সামান্য পরিমাণে সর্ষে আর পোস্ত, তেজপাতা, পরিমাণ অনুযায়ী তেল ও হলুদ এবং স্বাদ অনুযায়ী নুন।

প্রণালি:

প্রথমে শুকনো কড়াইয়ে মৌরি, খানিকটা রাঁধুনি আর মেথি নেড়ে নিয়ে বেঁটে নিন। এরপর মশলাটি একটি পাত্রে তুলে রাখুন। তারপর মিক্সি বা শিলনড়া দিয়ে বেঁটে নিন পোস্ত আর সর্ষে। এরপর কড়াইয়ে উচ্ছে বা করলা, আলু, গাজর, বেগুন সহ সমস্ত সবজিগুলো একে একে ভেজে নিয়ে একটি আলাদা পাত্রে তুলে রাখুন। তারপর সেই তেলেই ভেজে নিন বড়ি। বড়ি ভাজা হয়ে গেছে একটি পাত্রে তুলে রেখে এরপর কড়াইয়ে রাঁধুনি, সর্ষে, তেজপাতা ফোড়ন দিয়ে নিন।

ফোড়ন দেওয়া হয়ে গেলে কড়াইয়ে দিয়ে দিন পোস্ত বাটা এবং আদা বাটা। এরপর তাতে উচ্ছে এবং বেগুন বাদে সমস্ত সবজিগুলো দিয়ে ভালো করে নাড়াচাড়া করুন। তারপর কড়াইয়ে স্বাদ অনুযায়ী নুন দিয়ে মিনিট পাঁচেকের মতো ঢেকে রাখুন কড়াইটি। এরপর সবজি খানিকটা সেদ্ধ হয়ে এলে দিয়ে দিন বেগুন। তারপর কড়াইয়ে দিয়ে দিন আগে থেকে বেঁটে রাখা সর্ষে। এরপর কড়াইয়ে দিয়ে দিন উচ্ছে। এবারে দিয়ে দিন বড়িগুলো। তারপর সবশেষে দুধ ছড়িয়ে কিছুক্ষন ফুটিয়ে নিলেই রেডি আপনাদের দুধ শুক্তো।

Ruhi Roy

রুহি রায়, গণ মাধ্যম নিয়ে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর পাশ। সাংবাদিকতার প্রতি টানে এই পেশায় আসা। বিনোদন ক্ষেত্রে লেখায় বিশেষ আগ্রহী। আমার লেখা আরও পড়তে এখানে ক্লিক করুন।