Food

ভেটকি ইলিশের পাতুরি তো অনেক খেলেন! বানিয়ে ফেলুন হাঁসের ডিমের পাতুরি! জেনে নিন রেসিপি, না খেলে কিন্তু মিস

এইরকম হালকা ঠান্ডায় কারুর কিভালো লাগে এক নাগাড়ে রান্না করতে! না একদমই নয় সকলেরই মন চায় কিছু নতুনত্ব করতে, সকলকে নতুনত্ব খাওয়াতে তবে কি করবে? সেই এক ঝোল, ঝাল বা কষা। ভালো লাগে বলুন! তাই আজ এমন একটি রেসিপি জেনে নিন যেটি খেতেও হবে সুস্বাদু অথচ বানানোও তেমন ঝামেলার কাজ নয়। খুব সহজেই তারা আপনারা বানিয়ে নিতে পারবেন রান্নাটি। তবে তার আগে চলুন দেখে নিই কি কি কি উপকারিতা আছে হাঁসের ডিমে।

হাঁসের ডিম বেশি পরিমাণে থাকে প্রোটিন, ফ্যাট, ওমেগা থ্রি তাই যাদের হাই প্রোটিন ডায়েট বা পালেও ডায়েট আছে তাদের জন্য হাঁসের ডিম আদর্শ। এছাড়াও হাঁসের ডিম ভিটামিন বি ১২ থাকে তাই নিয়মিত হাঁসের ডিম খেলে রক্তে নতুন ব্লাড সেল তৈরি হয় এছাড়াও ত্বক উজ্জ্বল রাখে, চোখ ভাল রাখে। তাছাড়া হাঁসের ডিমের সেলেনিয়াম রোগের প্রতিরোধের ক্ষমতা বাড়ায়। সুস্থ স্নায়ুতন্ত্র গঠন এবং ডিএনএ সিন্থেসিস গঠনে সাহায্য করে হাঁসের ডিম। ক্যান্সার আক্রমণের আশঙ্কা কমানোর সঙ্গে সঙ্গে হৃদযন্ত্রকে সুস্থ রাখতে সাহায্য করে। তাহলে চলুন এবার জেনে নিই কি কি উপকরণ লাগছে হাঁসের ডিমের পাতুরি বানাতে।

উপকরণ:

হাঁসের ডিম: ৬টি
সাদা এবং কালো সর্ষে : ২ টেবিল চামচ
পোস্ত: ২ টেবিল চামচ
সাদা তিল: ২ টেবিল চামচ
কাঁচা লঙ্কা: ৫-৬ টি
সর্ষের তেল: ৩ টেবিল চামচ
কলা পাতা: কয়েক টুকরো
নুন স্বাদ মতো: স্বাদ অনুযায়ী

প্রণালি:

প্রথমে হাঁসের ডিমগুলিকে ভালো করে সেদ্ধ করে নিন। হাঁসের ডিমগুলি সেদ্ধ হতে হতে আগুনে কলাপাতাগুলি ভালো ভাবে সেঁকে নিন। পোস্ত, দুই ধরনের সর্ষে, কাঁচালঙ্কাগুলিকে সামান্য নুন দিয়ে মিক্সিতে বেঁটে নিন। তারপর খোসা ছড়িয়ে হাঁসের ডিমগুলিকে দুভাগ করে কেটে নিন। এরপর একটি পাত্রে ওই বাটা মশলার সঙ্গে সর্ষের তেল ভালো করে মিশিয়ে নিন। তারমধ্যে ডিমগুলোকে ভালো করে মিশিয়ে নিন। এরপর কলাপাতায় মশলা মাখানো অর্ধেক হাঁসের ডিমগুলো দিয়ে দিন।

তার ওপর একটা করে চেরা কাঁচা লঙ্কা দিয়ে নিন। তারপর ওপর থেকে কয়েক ফোঁটা সর্ষের তেল ছড়িয়ে দিয়ে, কলাপাতা মুড়ে টুথপিক দিয়ে আটকে দিন। তারপর কড়াই বা চাতুটে সামান্য তেল ব্রাশ করে, তার মধ্যে কলাপাতায় মোড়া ডিম সেদ্ধগুলি দিয়ে ভালোভাবে সেঁকে নিন। তারপর টিফিন বক্সে কলাপাতায় মোড়া ডিমগুলো সাজিয়ে ফুটন্ত জলের মধ্যে রেখে ভাপিয়ে নিন। হয়ে গেছে তারপরই গরম গরম পরিবেশন করুন ডিমের পাতুরি।

Ruhi Roy

রুহি রায়, গণ মাধ্যম নিয়ে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর পাশ। সাংবাদিকতার প্রতি টানে এই পেশায় আসা। বিনোদন ক্ষেত্রে লেখায় বিশেষ আগ্রহী।